কাবুলিওয়ালার দেশে ভালো নেই ‘মিনি’রা

169

কাবুল: তালিবানের রাজত্বে কাবুলিওয়ালার দেশে ভালো নেই ‘মিনি’রা। সেদেশে বন্দুকের জোরে দুই দশক পর ফের ক্ষমতায় এসেছে তালিবান। আর ক্ষমতায় এসে জঙ্গি সংগঠনটি জারি করছে একের পর ফতোয়া। তালিবান রাজত্বে আফগান কিশোরী, তরুণীরা রীতিমতো আতঙ্কিত।

 একনজরে তালিবানি ফতোয়া: 

- Advertisement -
  • রক্তের সম্পর্ক রয়েছে পরিবারের এমন সদস্য বা স্বামী ছাড়া আফগান মহিলারা রাস্তায় বেরোতে পারবেন না।
  • বোরখা বাধ্যতামূলক না হলেও, অবশ্যই পরতে হবে হিজাব।
  • বাড়ির বাইরে পরতে হবে সম্পূর্ণ পা-ঢাকা জুতো।
  • ১৫-৪৫ বয়সী অবিবাহিত ও বিধবা আফগান মহিলাদের বিয়ে করবে তালিবানি জঙ্গিরা।

এসব ফতোয়ার জেরে আফগানিস্তানের মহিলারা আতঙ্কিত। তাঁদের সুরক্ষা, স্বাধীনতা প্রশ্নের মুখে পড়েছে। যদিও মুখপাত্র সুহেল শাহিন বলে, ‘মহিলাদের বোরখা না পরলেও চলবে। তবে পরতেই হবে হিজাব।‘ আরেক মুখপাত্র জাবিউল্লা মুজাহিদের দাবি, তালিবান মহিলাদের অধিকার সুরক্ষিত রাখবে। আফগান মহিলাদের উচ্চশিক্ষায় তাঁদের কোনও আপত্তি থাকবে না। যদিও আফগানিস্তান মুখপাত্ররা এমন প্রতিশ্রুতি দিলেও তা কতটা বাস্তবায়িত হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। কারণ কিছুদিন আগেই আঁটোসাঁটো পোশাক পরার ‘অপরাধ’-এ এক তরুণীকে প্রকাশ্যে গুলি করে খুন করেছে তালিবান জঙ্গিরা। বুধবারও কাবুলের রাস্তায় এক মহিলাকে গুলি করে খুন করেছে তাঁরা।

এদিকে, সন্ত্রাসের কবলে পড়ে আফগানিস্তানে বিপন্ন হচ্ছে শৈশব। মঙ্গলবার কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সাতমাসের এক শিশুকন্যাকে উদ্ধার করেন বিমানবন্দরের কর্মীরা। শিশুটি বিমানবন্দর চত্বরেই পড়েছিল। সদ্যোজাতের কান্না শুনে তাকে উদ্ধার করেন সেখানকার কর্মীরা। তবে তার বাবা-মায়ের খোঁজ মেলেনি।