আইএসএফের সঙ্গে জোট নিয়ে জেলা নেতাদের তোপের মুখে সিপিএম রাজ্য নেতৃত্ব

251
সংগৃহীত

কলকাতা: দলের কতিপয় নেতা দলটাকে নিজেদের পৈত্রিক সম্পত্তি বলে মনে করে যা খুশি তাই সিদ্ধান্ত নিচ্ছে। আর তার ফল ভোগ করতে হচ্ছে দলের অন্যান্য নেতা ও কর্মীদের। সুতরাং নুতন করে রাজ্য কমিটির বৈঠক ডেকে, আন্দোলন কর্মসূচি কিভাবে পালিত হবে তা নিয়ে আলোচনা করার কোন প্রয়োজন নেই বলেই মনে করেন সিপিএমের একাধিক জেলা কমিটির নেতৃত্ব। উল্লেখ্য শনিবার থেকে সিপিএমের শুরু হল দু’দিনব্যাপী রাজ্য কমিটির বৈঠক। ভার্চুয়াল এই বৈঠকে জেলা নেতাদের তীব্র ভৎসনার মুখে পড়তে হয় রাজ্য নেতৃত্বকে। বৈঠকটি যে কারণে ডাকা হয়েছিল প্রথম দিন অবশ্য তেমন করে সেই বিষয়টি তুলতেই পারলেন না দলে রাজ্য কমিটি নেতারা। এদিন দলের একাধিক জেলা, বিশেষ করে বর্ধমান, বাঁকুড়া, বীরভূম, নদিয়া, পুরুলিয়া, জলপাইগুড়ি ও দার্জিলিং জেলা নেতৃত্ব বিগত বিধানসভা নির্বাচনে ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের সঙ্গে জোট গঠনের ব্যাপারে তীব্র সমালোচনায় মুখর হন।

এদিনের বৈঠকে একাধিক জেলা নেতৃত্বকে বলতে শোনা যায়, যে অন্ধ বিজেপির বিরোধিতা করতে গিয়ে দলের রাজ্য নেতৃত্ব তৃণমূল কংগ্রেসকে অনেকখানি আন্ডারএস্টিমেট করেছিল। আটকা পড়েছিল তৃণমূল কংগ্রেসকে সুবিধা পাইয়ে দিতেই। আর যার ফল দলকে ভোগ করতে হল সদ্যসমাপ্ত বিধানসভা নির্বাচনে। তাই এর দায় রাজ্য নেতৃত্বকেই নিতে হবে বলেও দাবি তুলেছেন অনেকেই। সুত্রের খবর অনুয়ায়ী, দলের জেলা নেতৃত্বের এই সমালোচনার কোন যুক্তিপূর্ণ উত্তর দিতে ব্যর্থ হয়েছেন দলের রাজ্য নেতৃত্ব। এদিন দলের অপর একটি সূত্র থেকে পাওয়া খবরে জানা গিয়েছে, এদিনের দলের ভার্চুয়াল বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। তিনিও দলের রাজ্য নেতৃত্বের বিরুদ্ধে বিষোদগার করেছেন। তিনি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন যে, দলের রাজ্য নেতৃত্বের অনেকেই রাজ্যের মানুষের মন বুঝতে ব্যর্থ হয়েছেন। আর তারই জেরে বিধানসভা নির্বাচনে এরাজ্যে দলের শোচনীয় হাল হয়েছে।

- Advertisement -