ইসলামপুরে জঙ্গলে ঢেকেছে সাংস্কৃতিক মঞ্চ

225

অরুণ ঝা, ইসলামপুর : প্রায় একবছরের বেশি হতে চলল  ইসলামপুরের একমাত্র পাবলিক হল নেতাজি সুভাষ মঞ্চ পরিত্যক্ত ঘোষিত হয়েছে। অথচ এখনও নতুন ভবন তৈরির উদ্যোগ নেই। পরিত্যক্ত মঞ্চটি এখন জঙ্গলে ভরে গিয়েছে। ফলে সাংস্কৃতিক মঞ্চের অভাবে এই শহরের সংস্কৃতিকর্মীরা সমস্যায় পড়েছেন। শহরে ভালো অনুষ্ঠান করার আর দ্বিতীয় কোনও মঞ্চ নেই। একপ্রকার বাধ্য হয়ে পুর টার্মিনাসের যাত্রী শেডের নীচে সাংস্কৃতিক সংস্থাগুলির অনুষ্ঠান হয়। যদিও পুরসভার উদ্যোগে নিউটাউন এলাকায় একটি মুক্তমঞ্চ তৈরির কাজ চলছে। আর নেতাজি সুভাষ মঞ্চের আগের টেন্ডার বাতিল হয়ে যাওয়ার পর নতুন টেন্ডার ডাকা হয়নি। পুরসভার প্রশাসক কানাইয়ালাল আগরওয়াল শীঘ্রই মঞ্চের টেন্ডার প্রক্রিয়া শুরু হবে বলে দাবি করেছেন।

দুই দশকেরও বেশি সময় আগে ইসলামপুরে পাবলিক হল তৈরি হয়েছিল। এই হলই ছিল শহরের সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের প্রধান জায়গা। সঙ্গে এই মঞ্চে রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক অনুষ্ঠানও হত। বাম আমলের শেষ দিকে কয়েক লক্ষ টাকা খরচ করে পাবলিক হলের সংস্কারও করা হয়। কিন্তু অল্পসময় কাটতেই ফের মঞ্চের ভগ্নদশা প্রকট হয়ে উঠতে থাকে। ততদিনে পাবলিক হলটি নেতাজি সুভাষ মঞ্চ নামে চিহ্নিত হয়।

- Advertisement -

এই মঞ্চের দখল নিয়ে শহরের সাংস্কৃতিক মঞ্চগুলির রাজনীতিও একাধিকবার প্রকাশ্যে এসেছে। এর আগে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের মাধ্যমে টাকার আশ্বাস পেয়ে পুরসভা নেতাজি সুভাষ মঞ্চকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করে। একই সঙ্গে বর্তমান মঞ্চ ভেঙে অত্যাধুনিক মঞ্চ গড়ার কথাও ঘোষণা করা হয়। কিন্তু সেই ঘোষণা এখনও বাস্তব রূপ পায়নি। মঞ্চ ভেঙে নতুন কাজের টেন্ডার প্রক্রিয়াও হয়নি।  ইসলামপুর শহরে সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডল উন্নয়নে পুরসভা ও প্রশাসন উৎসাহী নয় বলে দীর্ঘদিন থেকেই অভিযোগ রয়েছে এবং এনিয়ে স্থানীয় মানুষের মধ্যে ক্ষোভও রয়েছে। তার ওপর শহরে অনুষ্ঠান করার মতো একটিও মঞ্চ না থাকায় সেই ক্ষোভ ক্রমশ বাড়ছে। বিশেষ করে নেতাজি সুভাষ মঞ্চ পরিত্যক্ত ঘোষণার পরও অত্যাধুনিক মঞ্চের কাজ শুরু না হওয়ায় প্রশাসনের ভমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

একসময় জানা গিয়েছিল তিন কোটি টাকা ব্যয়ে নেতাজি সুভাষ মঞ্চকে অত্যাধুনিক করে গড়ে তোলা হবে। কিন্তু লকডাউন পরবর্তী সময়ে এখন সেই পরিকল্পনা বিশবাঁও জলে। এদিকে, রাস্তা থেকে নেতাজি সুভাষ মঞ্চ আর চোখেই পড়ে না। মঞ্চের মূল গেট জঙ্গলে ঢেকে গিয়েছে। মঞ্চটি এখন কার্যত ভূতুড়ে বাড়িতে পরিণত হয়েছে। শহরের সাধারণ মানুষ বলছেন, ইসলামপুরে একটিও অত্যাধুনিক মঞ্চ না থাকা দুর্ভাগ্যের। আর এনিয়ে কর্তপক্ষের উদাসীনতা আরও দুর্ভাগ্যের। তাঁদের প্রশ্ন, আর কতদিন এই বঞ্চনা ভোগ করতে হবে? ইসলামপুর পুরসভার প্রশাসক কানাইয়ালাল আগরওয়াল বলেন, নেতাজি সুভাষ মঞ্চের অত্যাধুনিক কাজের জন্য আগের টেন্ডার বাতিল হয়েছে। ফলে নতুন করে টেন্ডার ডাকা হবে। লকডাউনের কারণে সমস্ত প্রক্রিয়া থমকে ছিল। তবে প্রায় এক কোটি টাকা ব্যয়ে শহরে মুক্তমঞ্চের কাজ চলছে। আশা করি নেতাজি সুভাষ মঞ্চের সমস্যার জটও শীঘ্রই কেটে যাবে।