প্রাক্তন বাম বিধায়কের মৃত‍্যুতে শোকের ছায়া চাঁচলে

175

মুরতুজ আলম, চাঁচল: খরবার প্রাক্তন বাম বিধায়কের মৃত‍্যুতে শোকের ছায়া চাঁচলে। দীর্ঘ রোগভোগের পর প্রয়াত হলেন অধুনা খরবা(বর্তমান চাঁচল)বিধানসভার প্রাক্তন বাম বিধায়ক তথা শিক্ষক নজমুল হক। মৃত‍্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮২ বছর। বার্ধক‍্যজনিত কারণেই তাঁর জীবনাবসান হয়েছে বলে পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শিলিগুড়ির একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত‍্যাগ করেন। মৃত্যুকালে রেখে গেলেন স্ত্রী, এক মেয়ে ও জামাতা আর অসংখ্য গুণগ্রাহী ছাত্রছাত্রী। তাঁর মৃত্যুতে শোকাহত গোটা চাঁচলবাসী।

চাঁচল সদর থেকে ৬ কিমি দূরত্ব বালিডাঙা গ্রামের তাঁর বাড়ি। ১৯৭২ সাল থেকে টানা ছয়বার বামফ্রন্টের প্রতীক নিয়ে দাঁড়িয়ে টানা দুবার জিতেছেন। ১৯৮৭ সাল থেকে ৯৭ সাল পযর্ন্ত টানা ১০ বছর খরবা বিধানসভার বিধায়ক ছিলেন তিনি চালিয়েছেন তিনি। খরবা বিধানসভায় বামফ্রন্টের একমাত্র বিধায়ক নজমুল হক সাহেবই। আর দেখা যায়নি এলাকায় বামফ্রন্টের বিধায়ক। নজমুল হক সাহেব রাজনীতির পাশাপাশি শিক্ষকতা পেশা নিয়েও জীবিকা নির্বাহ শুরু  করছিলেন। চাঁচল সিদ্ধেশ্বরী ইন্সটিটিউশনে তিনি অঙ্ক বিষয়ের শিক্ষক ছিলেন। ২০০০ সালে অবসর গ্রহন করেন বলে স্কুল সূত্রে জানা গেছে।

- Advertisement -

শুক্রবার সকালে শিলিগুড়ি থেকে মরদেহ পৌঁছায় চাঁচলের বাম কার্যালয় তথা মুজফফর আহমেদ ভবনে। সেখানে তাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে হাজির হয়েছিলেন মালদা জেলা বাম কমিটির সম্পাদক অম্বর মিত্র, সিমিআইএমের রাজ‍্য কমিটির সম্পাদক জামিল ফিরদৌস, ছিলেন সিপিআইএম নেতা জিয়াউল আনসারি সহ এলাকার পুরোনো ও নব বামকর্মীরা।

এদিন দলীয় কার্যালয় থেকে দেহ সোজা নিয়ে যাওয়া হয় সিদ্ধেশ্বরী স্কুলে সেখানে একমিনিট নীরবতা পালন করে স্কুলের পড়ুয়ারা সহ সমস্ত শিক্ষকেরা। শুক্রবারই গ্রামের বাড়ি বালিডাঙা গ্রামে দুপুর ২টা নাগাদ প্রাক্তন বিধায়কের দাফন-কাফন সম্পন্ন হয়েছে। তাঁর জানাজায় কয়েক হাজার লোক সমাগম হয়েছিল।

বাম সূত্রের খবর, বার্ধক‍্য বয়সেও বামফ্রন্টের একাধিক আন্দোলন, কর্মসূচিতে অংশ গ্রহন করে আসছিলেন প্রাক্তন বিধায়ক নজমুল হক সাহেব। সম্ভাব‍্য আর একমাস বাদেই বিধানসভা নির্বাচন। এই এলাকায় নজমুল হকই ছিলে বামেদের ভোটের লড়াইয়ের পুরোনো অস্ত্র। এইভাবে সবাইকে ছেড়ে যাবে প্রাক্তন বিধায়ক মেনে নিতে পারছেন না চাঁচল বিধাসভায় বাম সমর্থকেরা। তবে ভোটের মুখে পুরোনো অস্ত্র হারিয়ে চরম শোকস্তদ্ধ চাঁচলের বাম সমর্থকেরা। চোখের জলে শেষ বিদায় জানিয়েছেন এদিন সকলেই। সম্ভাব‍্য আর একমাস বাদেই বিধানসভা নির্বাচন। এই এলাকায় নজমুল হকই ছিলে বামেদের ভোটের লড়াইয়ের পুরোনো অস্ত্র। এইভাবে সবাইকে ছেড়ে যাবে প্রাক্তন বিধায়ক মেনে নিতে পারছেন না চাঁচল বিধাসভায় বাম সমর্থকেরা।