ছত্তিশগড়ে মাওবাদী হামলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২

110
ছবিটি সংগৃহীত

রায়পুর:  মাওবাদী হামলায় মৃতের সংখ্যা বাড়ছে। এখনও পর্যন্ত ২২ জনের দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার ছত্তিশগড়ের বিজাপুর এলাকার তেররামের জঙ্গলে মাওবাদীদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলির লড়াই হয়। তারপর থেকে নিরাপত্তা বাহিনীর জওয়ানরা নিখোঁজ। পুলিশ সূত্রে খবর, রবিবার মাওবাদীদের খোঁজে যৌথ অভিযান চালায় সিআরপিএফ, ডিআরজি এবং এসটিএফ। তাদের কাছে ওই এলাকায় মাওবাদীদের খবর ছিল৷ তার ভিত্তিতেই তল্লাশি অভিযান চালানো হয় বলে জানান ছত্তিশগড়ের ডিজিপি ডিএম অবস্থি।

সুকমা ও বিজাপুরের সীমানায় মাওবাদীদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছিল সেনাবাহিনী। তখনই তাঁদের ওপর হামলা চালায় মাওবাদীরা। পালটা গুলি চালায় সেনাবাহিনীও। সেসময় শহিদ হয় পাঁচ জওয়ান। পাশাপাশি জখম হয়েছেন আরও কুড়ি জওয়ান। অন্যদিকে, এনকাউন্টারে নিহত হয়েছে দুই মাওবাদী। প্রবল গোলাগুলির ফলে শহীদ হন জওয়ানরা। প্রসঙ্গত, চলতি বছরের মার্চ মাসে মাওবাদী হামলায় মারা যান বিজাপুর জেলা পঞ্চায়েত সদস্য। তার আগে ছত্তিশগড়ের কোন্ডাগাও জেলায় ধানোরা এলাকায় ১১টি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় মাওবাদীরা।

- Advertisement -

এই ঘটনায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি দুঃখ প্রকাশ করে টুইটে লিখেছেন, ‘ছত্তিশগড়ের শহিদ জাওয়ানদের প্রতি আমার শ্রদ্ধার্ঘ, পরিবারের প্রতি সমবেদনা। বীরদের আত্মবলিদান কখনও ব্যর্থ হবে না। আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করি।’ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ শহিদ জাওয়ানদের প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন করেছেন। তিনি ছত্তিশগড়ের মুখ্যমন্ত্রী ভূপেশ বাঘেলের সঙ্গে আলোচনা করে কেন্দ্রের তরফে পরিস্থিতির ওপর নজরদারি রাখার ব্যবস্থা করেছেন। পাশাপাশি, নিহত ও আহত জওয়ানদের সবরকম সাহায্য করবে কেন্দ্র-রাজ্য।