পরিবহণকর্মী এবং হকারদের করোনা টিকা দেওয়ার উদ্যোগ স্বাস্থ্যদপ্তরের

108

জলপাইগুড়ি: অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পরিবহণ কর্মী এবং হকারদের করোনার টিকা দেওয়ার উদ্যোগ নিল স্বাস্থ্যদপ্তর। মঙ্গলবার জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতালের রোগী কল্যাণ সমিতির বৈঠকে এমনই সিদ্ধান্ত হয়েছে। আগামী এক দু’দিনের মধ্যে জেলায় ভ্যাকসিনের ডোজ পৌঁছোলেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে স্বাস্থ্যদপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে।

অপরদিকে, নতুন করে ভ্যাকসিন এলে ১৮-৪৫ বছর পর্যন্ত সাধারণ মানুষকেও ভ্যাকসিন দেওয়ার বিষয়টি এদিনের বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। সেই সঙ্গে জেলার কোভিড হাসপাতাল, নব নির্মিত কোভিড ওয়ার্ড সহ বিভিন্ন ব্লকের সেফ হাউজগুলোর পরিকাঠামো এবং পরিষেবা কতটা তৈরি রয়েছে সেবিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

- Advertisement -

রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান বিজয় চন্দ্র বর্মন বলেন, ‘জেলায় কোভিড সংক্রামিতদের চিকিৎসার জন্য পর্যাপ্ত বেডের ব্যবস্থা রয়েছে। এক শ্রেণীর মানুষ সোশ্যাল মিডিয়ায় কোভিড হাসপাতালে বেড নেই বলে যে পোস্ট করছেন তাতে মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। মানুষের কাছে অনুরোধ করবো কোভিড নিয়ে ভুল বার্তা না ছড়ানোর জন্য।’

উত্তরবঙ্গের জনস্বাস্থ্য বিভাগের ওএসডি চিকিৎসক সুশান্ত রায় বলেন, ‘আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পরিবহণ কর্মী এবং হকারদের টিকা দেওয়া হবে। এই মানুষগুলোর তালিকা জেলা প্রশাসন থেকে আমাদের কাছে দিলে তাদের আমরা টিকা দেব। ১৮ ঊর্ধ্বদের এবং পরিবহন কর্মী ও হকারদের মিলিয়ে দিনে ৩০০ জনের টিকা দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে টিকার দ্বিতীয় ডোজও দেওয়া হবে।’