আট ব্লকে করোনার মৃতদেহ সৎকারে উদ্যোগ জেলা প্রশাসনের

43

আসানসোল: পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোল ও দূর্গাপুর মহকুমার আটটি ব্লকে কোভিডের মৃতদেহ দাহ নিয়ে চরম সমস্যা দেখা দিয়েছে। বিশেষ সমস্যায় মৃতের পরিজনেরা। মূলত বাংলা-ঝাড়খন্ড সীমান্ত লাগোয়া সালানপুর ব্লকে দেখা যাচ্ছিল অনেক ক্ষেত্রেই বাড়িতে মারা যাওয়ার পরে ঘন্টার পর ঘন্টা মৃতদেহ পড়ে থাকছে। কিভাবে ডেথ সার্টিফিকেট মিলবে, কোন গাড়িতে মৃতদেহ নিয়ে যাওয়া হবে বা কোন শ্মশানে কারা কিভাবে নিয়ে যাবে এনিয়ে নির্দিষ্ট কোনও রূপরেখা ছিল না। এমনই একাধিক ঘটনার খবর পেতেই জেলাশাসক অনুরাগ শ্রীবাস্তব জেলা পরিষদের অতিরিক্ত জেলাশাসক শুভেন্দু বসুকে দায়িত্ব দেন গোটা বিষয়টি দেখার জন্য। এরপরেই বৃহস্পতিবার এবিষয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

জেলাশাসকের নির্দেশ মতো এদিন জেলা পরিষদের অতিরিক্ত জেলাশাসক শুভেন্দু বসু জেলার সমস্ত বিডিও, বি এমওএইচ ও স্বাস্থ্য দপ্তরের আধিকারিকদের নিয়ে বৈঠক করেন। সেই বৈঠকে জেলা পঞ্চায়েত ও গ্রামীণ আধিকারিক তথা ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট তমোজিৎ চক্রবর্তীও উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে অতিরিক্ত জেলাশাসক শুভেন্দু বসু বলেন, ‘সমস্যা সমাধানে প্রত্যেক ব্লকে একজন করে নোডাল অফিসার নিযুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া শুক্রবারের মধ্যেই বিভিন্ন ব্লকের বিডিওদের বলা হয়েছে পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ও গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানদের নিয়ে বৈঠক করে জানাতে হবে করোনার দেহগুলি কোথায় কিভাবে সৎকার করা হবে। প্রত্যেক ব্লকে এজন্য আলাদা করে গাড়ির ব্যবস্থা করা হবে।

- Advertisement -

অন্যদিকে এদিন আসানসোল পুরনিগমের পুর প্রশাসক অমরনাথ চট্টোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে করোনা মোকাবিলায় একটি বৈঠক হয়। সেই বৈঠকে পুর প্রশাসক বোর্ডের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। সেই বৈঠকেও একাধিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।