ফালাকাটায় রাস্তার কাজের আনুষ্ঠানিক সূচনা জেলা প্রশাসনের

337

সুভাষ বর্মন, ফালাকাটা: ফালাকাটা ব্লকের ফালাকাটা-২ ও গুয়াবরনগর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় মঙ্গলবার ৫০টি গ্রাভেল ও সিসি রাস্তার কাজের আনুষ্ঠানিক সূচনা করল আলিপুরদুয়ার জেলা প্রশাসন। বেহাল রাস্তার কাজ হতে চলায় খুশি এলাকার মানুষ।

প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, ফালাকাটা-২ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় রয়েছে গ্রাভেল ও সিসি রাস্তা মিলে ৩৭টি রাস্তা রয়েছে। এজন্য বরাদ্দ হয় ১ কোটি ৬৬ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা। গুয়াবরনগরের ১৩টি রাস্তার জন্য বরাদ্দ হয়েছে সাড়ে আটান্ন লক্ষ টাকা। এই রাস্তার কাজগুলি একশোদিনের প্রকল্পে হবে। জানা গিয়েছে, চলতি বর্ষায় এই দুই গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার রাস্তাগুলির বেহাল অবস্থার কারণে সমস্যায় পড়েন বহু মানুষ। পঞ্চায়েত সদস্যদের মাধ্যমে এই বেহাল রাস্তার রিপোর্ট পৌঁছায় প্রশাসনের কাছে।

- Advertisement -

সম্প্রতি, ফালাকাটায় এক প্রশাসনিক বৈঠকে কাজগুলির অনুমদোন দেয় জেলা প্রশাসন। এদিনের অনুষ্ঠানে ফালাকাটায় উপস্থিত ছিলেন আলিপুরদুয়ারের অতিরিক্ত জেলাশাসক ইন্দ্রজিৎ তালুকদার, ফালাকাটার বিডিও সুপ্রতীক মজুমদার, ফালাকাটা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি সুরেশ লালা, উদ্বাবস্তু পুনর্বাসন উপদেষ্টা কমিটির চেয়ারম্যান মৃদুল গোস্বামী, প্রাক্তন সাংসদ ঋতব্রত বন্দোপাধ্যায় সহ প্রধান ও পঞ্চায়েত সদস্যরা।

অতিরিক্ত জেলাশাসক বলেন, ‘কাল থেকেই রাস্তার কাজগুলি শুরু হবে।’ পাশাপাশি স্থানীয় বাসিন্দাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘এইসব রাস্তা তৈরি হলে সেগুলি রক্ষণাবেক্ষনের দায়িত্ব আপনাদের নিতে হবে।’ ফালাকাটার বিডিও বলেন, ‘গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানদের প্রস্তাব অনুযায়ী এই প্রকল্পের কাজের অনুমোদন দিয়েছেন জেলাশাসক।’ এতে খুশি স্থানীয় বাসিন্দারাও। কাদম্বিনী চা বাগানের বাসিন্দা জীবন মুন্ডা বলেন, ‘এতদিন গ্রামের রাস্তা খারাপ ছিল। এখন রাস্তার কাজ হলে ভালো হয়। এজন্য আমরা খুশি।’ ফালাকাটা-২ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান অপর্ণা ভট্টাচার্য জানান, চলতি বর্ষায় এই বেহাল রাস্তা দিয়ে চলাচলে বহু মানুষের ভোগান্তি হয়। এখন সমস্যা মিটতে চলেছে। একসঙ্গে এতগুলি রাস্তার কাজের অনুমোদন দেওয়ায় প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।