জেল হেপাজতেই হৃদরোগে আক্রান্ত হলেন রায়গঞ্জের এই চিকিৎসক

259

রায়গঞ্জ:  জেল হেফাজতে থাকাকালীন হৃদরোগে আক্রান্ত হলেন রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের গাইনি চিকিৎসক রাকেশ গোপ। এদিন দুপুরে ওই চিকিৎসকের ইসিজি ইকোকার্ডিওগ্রাফি সহ একাধিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। বর্তমানে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সিসিইউ বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছেন তিনি। জেলা সংশোধনাগারের এক আধিকারিক বলেন, ‘গতকাল রাতেই হৃদরোগে আক্রান্ত হন জেল হেফাজতে থাকা ওই গাইনি চিকিৎসক। সঙ্গে সঙ্গে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করার ব্যবস্থা করা হয়।’ মেডিসিন বিভাগের এক চিকিৎসক বলেন, ‘রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রসূতি বিভাগে করোনা আক্রান্ত গর্ভবতী মহিলাদের সিজার ও চিকিৎসা করতে গিয়ে পরপর দুবার করোনা আক্রান্ত হন।

মেডিসিন বিভাগের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা পোষ্ট কোভিডের পর দুই মাস বেড রেস্ট নিতে বলেছিলেন। কারণ তার ফুসফুসে করোনা সংক্রমণের জেরে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। কিন্তু তিনি রেস্ট না নিয়েই ফের রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কাজে যোগ দেন।’ পর দুবার করোনা আক্রান্ত হওয়ার জন্যই গতকাল রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন বলে চিকিৎসকদের দাবি। আবার অনেক চিকিৎসক বলছেন, জেল হেফাজত হওয়ার পরেই মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন রাকেশ গোপ। সেই কারণেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন তিনি। উল্লেখ্য, সরকারি কর্মচারীকে হেনস্থা এবং আটকে রাখার অভিযোগে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজের প্রসূতি বিভাগের চিকিৎসক রাকেশ গোপকে চলতি মাসের ২২ তারিক গভীর রাতে একটি বেসরকারি নার্সিং হোম থেকে গ্রেপ্তার করে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ। স্বাস্থ্যসাথী কার্ডকে মান্যতা না দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তাঁর বিরুদ্ধে।

- Advertisement -