শিবরূপেই পুজো পান লোকদেবতা ‘জুরাবান্দা’

132

জটেশ্বর: ফালাকাটা ব্লকের ধনীরামপুর এলাকায় শিবরূপেই পূজিত হন লোকদেবতা জুরাবান্দা ঠাকুর। প্রতিবছর শিব চতুর্দশী উপলক্ষ্যে ধনীরামপুরের জুরাবান্দা থানে ভীড় জমান এলাকার বাসিন্দারা। সেখানে মহাসমারোহে পালন করা হয় জুরাবান্দা ঠাকুরের পুজো ও শিবচতুর্দশী উৎসব। জুরাবান্দা থান কমিটির তরফে শিবরাত্রি উপলক্ষ্যে প্রতিবছর আয়োজন করা হয় হরিনাম সংকীর্তন, পদাবলী এবং রক্তদান শিবির। মঙ্গলবার রক্তদান শিবিরের মধ্য দিয়ে পুজোকে কেন্দ্র করে নানা অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ফালাকাটা পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য সগেন্দ্র নাথ রায়, সমাজসেবী বিকাশ রায়, এসরাউল আলম সহ অনেকেই।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, জমিদার আমল থেকে নন্দু রায়, কেন্দেলা রায়, হাবাং রায় এবং এলাকার সংস্কৃতি প্রেমী বলে পরিচিত ইন্দেশ্বরী রায় এই জুরাবান্দা থানে পুজোর দ্বায়িত্ব নেন। বহু বছর ধরে এই পুজো করেন তাঁরা। পরে জুরাবান্দা থানের জন্য ন্যাদেন দইয়ার রায় নামে এক সমাজসেবী ২৪ ডেসিমেল জমি দান করেন। সেই জমিতেই রয়েছে দুটি বহু প্রাচীন অশ্বত্থ গাছ ও জুরাবান্দা ঠাকুরের মন্দির।

- Advertisement -

জুরাবান্দা পূজার মাড়েয়া তরুনী কান্ত রায় বলেন, ‘জুরাবান্দা থানে রাজংশী সমাজের সমস্ত দেবতার পূজা করা হয়। এলাকার সমস্ত মানুষই শুভকাজের শুরুতে জুরাবান্দার পূজা দেন। বহুদিন থেকে এই পূজার রীতি এলাকায় প্রচলিত।’ রায়গঞ্জ ইউনিভার্সিটির ডিন ড. দীপক কুমার রায় বলেন, ‘জুরাবান্দা মূলত পথের দেবতা। রাজবংশী সমাজে এই দেবতার পূজার প্রচলন লক্ষ্য করা যায়। মানুষ শিবের সঙ্গে জুরাবান্দার তুলনা করেন। তবে শিব ও জুরাবান্দা আলাদা দেবতা।’