দলছুট হস্তীশাবককে সামলাতে হিমশিম খেল বনদপ্তর

281

মেটেলি: চা বাগানে আটকে থাকা দলছুট হস্তীশাবককে সামলাতে হিমশিম খেতে হল বনদপ্তরকে। অবশেষে নিয়ে আসা হয় গরুমারার দুই কুনকি হাতি ভোলানাথ ও বর্ষণকে। আসে মাল ৪৬ ব্যাটালিয়নের এসএসবি জওয়ান, মেটেলি থানার পুলিশ কর্মীকেও।

জানা গিয়েছে, বুধবার সকালে চালসা মেটেলি রাজ্য সড়কের আইভীল মোড় সংলগ্ন এলাকায় প্রায় ২০-২৫ টি হাতির একটি দল আটকে পড়ে। বাকি সব হাতি সকালে রাজ্য সড়ক পেরিয়ে ইনডং চা বাগান হয়ে চাপরামারী জঙ্গলে চলে গেলেও একটি শাবক আটকে যায়। সকালে মানুষের ভিড় থাকায় শাবকটি আর দলের সাথে যেতে পারেনি। সবকটি দলছুট হয়ে ঘুরতে থাকে। সেটি চলে যায় নাগেশ্বরী চা বাগানে। সেখান থেকে চলে আসে আইভীল চা বাগানের ঝোপের মধ্যে।

- Advertisement -

এদিন খবর পেয়ে আসেন গরুমারার এডিএফও জন্মঞ্জয় পাল, খুনিয়া স্কোয়াডের রেঞ্জার রাজকুমার লায়েক সহ সকলই। অবশেষ গরুমারা থেকে নিয়ে আসা হয় কুনকি হাতিদের। হাতির পিঠে চড়ে এডিএফও এবং রেঞ্জার হস্তীশাবকের কাছে যায়। তার ওপর নজর রাখে। আসেন পশু চিকিৎসক স্বেতা মন্ডল।

এডিএফও জন্মঞ্জয় পাল জানান, কুনকি হাতির সাহায্যে হস্তীশাবকটির ওপর নজর রাখা হচ্ছে। সবকটি সুস্থ আছে। সন্ধ্যার পর সেটিকে জঙ্গলে পাঠানোর চেষ্টা করা হবে। শাবকটির ওপর নজর রাখা হচ্ছে। এদিন কুনকি হাতিদের দেখতে মানুষের ভিড় উপচে পরে।