এবার কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা পেলেন তৃণমূল ত্যাগী প্রাক্তন কউন্সিলার

143

বর্ধমান: বিজেপিতে যোগ দিতেই কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা পেলেন পূর্ব বর্ধমান জেলার আরও এক তৃণমূল ত্যাগী নিত্যানন্দ চট্টোপাধ্যায়। ভোটের নির্ঘণ্ট প্রকাশের আগে অর্থাৎ শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ নিত্যানন্দবাবুর বাড়িতে পৌঁছোয় কেন্দ্রীয় বাহিনীর এক কমাণ্ডার সহ চার জওয়ান। যদিও নিত্যানন্দবাবু এদিন বলেন, ‘নিরাপত্তা বাহিনী চেয়ে কোথাও চেয়ে আবেদন করিনি।’ তবে বর্ধমান পূর্বের তৃণমূল ত্যাগী সাংসদ সুনীল মণ্ডল এবং কালনা ও মন্তেশ্বরের তৃণমূল ত্যাগী বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুণ্ডু ও সৈকত পাজার পর নিত্যানন্দবাবুর কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা পাওয়ার বিষয়টিকে বিজেপির দেওয়া লালিপপ বলে কটাক্ষ করেছেন তৃণমূল নেতারা।

নিত্যানন্দ চট্টোপাধ্যায় এদিন জানান, সকালে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা এসে পৌঁছান বাড়িতে। তাঁদের দেখে তিনি কার্যত হতবাক হয়ে যান। জওয়ানরা তাঁকে স্বরাষ্ট্র সচিবের লেখা কাগজ দেখান। তা পড়েই তিনি জানতে পারেন কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা তাঁর নিরাপত্তার দায়িত্ব থাকবেন। গত ১৯ ডিসেম্বর পশ্চিম মেদিনীপুরের কলেজ মাঠে আয়োজিত বিজেপির জনসভায় শুভেন্দু অধিকারীর হাত ধরে বিজেপিতে যোগ গুসকরার দাপুটে তৃণমূল কংগ্রেসের নেতা নিত্যানন্দ চট্টোপাধ্যায়। তারপর এদিন নিরাপত্তা পেয়ে স্বাভাবতই খুশী গুসকরা পৌরসভার প্রাক্তন কাউন্সিলর।

- Advertisement -

তৃণমূলের রাজ্য মুখপাত্র তথা পূর্ব বর্ধমান জেলাপরিষদের সহ-সভাধিপতি দেবু টুডু বলেন, ‘জন বিচ্ছিন্নরাই কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী পাচ্ছেন। কারণ বিজেপি জানে গদ্দারদের পাশে কোনও মানুষ নেই। একমাত্র কেন্দ্রীয় বাহিনী হবে এই সব গদ্দারদের মনের কথা শোনার সঙ্গী। সেটা বুঝেই বিজেপি নেতারা গদ্দারদের লালিপপ স্বরুপ কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা রক্ষী দিয়েছে।’