করোনা মোকাবিলায় ব্যর্থ সরকার, অভিযোগ চা বাগান মজদুর ইউনিয়নের

264

রহিদুল ইসলাম, চালসা: চা বাগানে কোনও রকম স্বাস্থ্যবিধি না মেনে কাজ হচ্ছে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে শ্রমিকরা চা বাগানে কাজ করছেন। বাগান কর্তৃপক্ষ নিজেদের স্বার্থে শ্রমিকদের স্বাস্থ্যবিধি না মানিয়েই কাজ করাচ্ছে। সরকারি নিয়মে চা বাগানে ইনস্টিটিউশনাল কোয়ারান্টিন খোলার কথা থাকলেও বাগান কর্তৃপক্ষ তা করছে না বলে অভিযোগ। করোনা মোকাবিলায় চা বাগানে রাজ্য সরকার ও বাগান কতৃপক্ষ ব্যর্থ।  রবিবার চালসায় চা বাগান মজদুর ইউনিয়নের জলপাইগুড়ি জেলা কাউন্সিল সভার পর সাংবাদিক দের এই অভিযোগ করেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক জিয়াউল আলম।

তিনি আরও বলেন, চা বাগানে রেশন ব্যবস্থায়ও সরকার ব্যর্থ। বাগানের শ্রমিকরা তাদের প্রাপ্য রেশন পাচ্ছেন না। বাগানের শ্রমিকদের কাছে এখনও আরকেএসওয়াই-এর রেশন কার্ড রয়েছে। এএওয়াই-এর কার্ড অনেকেই পায়নি। কেন্দ্রীয় সরকারের চিনি, ডাল বাগান শ্রমিকরা পাচ্ছেন না। জিয়াউল বাবু আরও বলেন, করোনার ঠিকঠাক টেস্ট হচ্ছে না। প্রতিটি ব্লক হাসপাতালে করোনা টেস্টের জন্য ট্রুনাট যন্ত্র বসানোর দাবি জানান তিনি। রাজ্য সরকার বিরোধীদের স্বাধীনভাবে কথা বলতে দিচ্ছে না। বাকস্বাধীনতা হরণ করা হচ্ছে। চা বাগান শ্রমিকদের নূন্যতম মজুরি, জমির পাট্টা প্রদান, স্টাফ সাব স্টাফদের দাবিসহ যাবতীয় দাবির ভিত্তিতে আগামী ৩ জুলাই দেশব্যাপী বিভিন্ন চা বাগান সহ সরকারি দপ্তর, বাজার, গ্রাম্য এলাকায় প্রতিবাদ করা হবে। পাশাপাশি করোনা মোকাবিলায় পুলিশকর্মীদের প্রশংসা করেন তিনি।

- Advertisement -

সভায় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সভাপতি দিলকুমার ওঁরাও, সহ সভাপতি সুখমইত ওঁরাও, জয়ন্ত সাধারণ সম্পাদক রামলাল মুর্মু প্রমুখ। সভায় বানারহাট, মালবাজার, নাগরাকাটা, মেটেলি ওদলাবাড়ি এলাকার বিভিন্ন চা বাগানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। চা বাগান তৃনমূল কংগ্রেস মজদুর ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক তথা নাগরাকাটা বিধানসভার বিধায়ক শুক্রা মুন্ডা বলেন, ‘বিরোধীদের কাজ হল সরকারের সমালোচনা করা। করোনা মোকাবিলায় মানুষের জন্য রাজ্য সরকার কি কি করেছে তা মানুষ জানে। এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করব না। মানুষের জন্য আমাদের সরকার কাজ করে। বিরোধীরা কাজ করে না। তাই সমালোচনা ছাড়া তাদের কিছু করার নেই।’