পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের জমি বিক্রির সিদ্ধান্ত ওডিশা সরকারের

117
ছবি: সংগৃহীত

ভুবনেশ্বর: পুরীর জগন্নাথ মন্দিরের আয় বাড়াতে ৩৫ হাজার একরেরও বেশি জমি বিক্রির সিদ্ধান্ত নিল ওডিশার বিজেডি সরকার। জগন্নাথ মন্দিরের নামে বিপুল ভূসম্পত্তি রয়েছে। সেসব জমি থেকে আয় এবং ভক্তদের অনুদানেই পরিচালিত হয় মন্দিরের কাজকর্ম। মন্দিরের আয় বাড়াতে জগন্নাথ দেবের নামে ওডিশা এবং দেশের বিভিন্ন রাজ্যে ছড়িয়ে থাকা বিপুল পরিমাণ জমি উদ্ধার করে তা বিক্রির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

রাজ্যের মন্ত্রী প্রতাপ জেনা বিধানসভায় এমনটাই জানিয়েছেন। বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পরই তীব্র বিরোধিতায় সরব হয়েছেন বিরোধীদের একাংশ। কেউ কেউ জমি বিক্রি ঠেকাতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হবে বলে জানিয়েছেন। প্রতাপ জেনা আরও জানিয়েছেন, ওডিশায় জগন্নাথ দেবের নামে ৬০ হাজার ৪২৬ একরেরও বেশি জমি রয়েছে। তার মধ্যে ৩৪ হাজার ৮৭৬ একরের কিছু বেশি জমি সরকার উদ্ধার করেছে। সরকারের সমান নীতি অনুসরণ করে সব মিলিয়ে ৩৫,২৭২ একর জমি বিক্রির জন্য পদক্ষেপ করা হচ্ছে। কটকে ভারতী মঠে একটি বাড়ি, বিভিন্ন জেলায় জগন্নাথ দেবের নামে থাকা ৩১৫.৩৩৭ একর জমি ইতিমধ্যেই বিক্রি করা হয়েছে। এই বাবদ ১১.২০ কোটি টাকা মন্দিরের তহবিলে জমা দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ৬ রাজ্যে জগন্নাথ দেবের নামে থাকা প্রায় ৩৯৫.২৫২ একর জমি চিহ্নিত করা হয়েছে।

- Advertisement -

প্রতিবেশী পশ্চিমবঙ্গেই প্রায় ৩২২ একরের বেশি জমি রয়েছে। জমি রয়েছে মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, ছত্তিসগড় এবং বিহারেও। সেসব জমি বিক্রির জন্য সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। যারা দীর্ঘদিন ধরে জগন্নাথের নামে থাকা জমি জবরদখল করে আছেন, তাঁদের থেকে টাকা নিয়ে জমির অধিকার দেওয়া হবে বলেও সিদ্ধান্ত হয়েছে।