জৈন হাওয়ালা কাণ্ডে অর্ধসত্য তথ্য রাজ্যপালের, অভিযোগ তৃণমূলের

148

কলকাতা: রাজ্য ও রাজ্যপাল সংঘাত আবারও চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছাল জিটিএ হিসাব মন্তব্যকে নিয়ে। রাজ্যপাল যেভাবে বিভিন্ন ভাবে রাজ্য সরকারকে অপদস্থ করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তাতে বিরক্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেই কারণেই গতকালই রাজ্যপালের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন তিনি। শুধু তাই নয় একে অন্যের প্রতি দোষারোপ করার প্রক্রিয়াও এখনও অব্যাহত। গতকালই তার বিরুদ্ধে তোলা মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগকে নস্যাৎ করে দিয়ে সাংবাদিক বৈঠক করেছিলেন রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকর। আর এদিন রাজ্যপালের সাংবাদিক বৈঠককে অর্ধসত্য বলে আখ্যা দিয়ে তথ্য সহকারে তার জবাব দিলেন তৃণমূল নেতৃত্ব।

রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর গতকাল যেভাবে জিটিএ হিসাব নিয়ে সোচ্চার হয়েছিলেন সে ব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রী তাঁর ভ্রমণের খরচের হিসাব নিয়েও সোচ্চার হন। সেই জৈন হাওয়ালা কাণ্ডে রাজ্যপালের নাম জড়িত রয়েছে বলেও উল্লেখ করেছিলেন। সে ব্যাপারে সাফাই গেয়েছিলেন রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকর। কিন্তু তিনি গতকাল মিথ্যা তথ্য সাংবাদিকদের দিয়েছিলেন সে কথা তুলে ধরেই এদিন তৃণমূল ভবনে সাংবাদিক বৈঠকের আয়োজন করেন তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায় ও রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। তারা এদিন অভিযোগ তোলেন যে, রাজ্যপাল তার ক্ষমতার অপব্যবহার করছেন ও সংবিধানকে লঙ্ঘন করছেন।

- Advertisement -

এদিনের বৈঠকে জৈন হাওয়ালা কাণ্ডের শুনানি যে ৩০ বছর ধরে অদৃশ্য কারণে বন্ধ রয়েছে সেই নিয়ে কথা বলেন তৃণমূল নেতৃত্ব।  জৈন হাওয়ালাকাণ্ডের ডায়েরিতে জনৈক ধানকরের নাম উল্লেখ ছিল। সেই ধনকরই, রাজ্যপাল জাগদীপ ধনকর কিনা তা পরিষ্কার করে বলতে পারবেন রাজ্যপালই, এমনটায় জানানো হয়  এদিনের বৈঠকে। এহেন একাধিক রকমের অভিযোগ এদিনের বৈঠকে রাজ্যপালের বিরুদ্ধে তোলেন তৃণমূলের নেতৃত্ব। একাধিক বিষয়ে টুইট করা ও নানান বক্তব্য করা সংবিধান স্বীকৃত কিনা সে ব্যাপারেও প্রশ্ন তোলা হয় আজকের  সাংবাদিক বৈঠকে।