বসন্ত উৎসবে মেতে উঠল হাসিমারা

51

সমীর দাস, হাসিমারা: ভোটের রোজনামচা থেকে একটু যেন স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেললেন কালচিনি ব্লকের হাসিমারার বাসিন্দারা। বৃহস্পতিবার পুরানো হাসিমারার শ্রমিক কল্যাণ কেন্দ্র ময়দানে স্থানীয় অগ্ৰগামী সংঘের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হল বসন্ত উৎসব। উৎসবে সামিল হন পুরানো, নিউ হাসিমারা ছাড়াও এলাকার বিভিন্ন চা বাগানের বাসিন্দারা। ভোটের মুখে যখন চায়ের ঠেক থেকে শুরু করে বাড়ির অন্দরমহলে ভোট চর্চা ছাড়া কোন আলোচনাই হয় না। তখন এলাকার গৃহবধু থেকে শুরু করে তরুণ, তরুণী, কিশোর, কিশোরী ও শিশুরা বসন্ত উৎসবে সামিল হয়ে যেন এক পাল ঠান্ডা হওয়ার সন্ধান পেলেন। তরুনী, কিশোরীদের নৃত্যানুষ্ঠান শেষে দোল খেলায় মেতে ওঠেন প্রত্যেকে। ক্লাবের তরফেই সেখানে চাট মসালা, ঘুগনি, আইসক্রিমের ব্যবস্থাও রাখা হয়েছিল। চারিদিকে চা গাছ তার মাঝখানে বসন্ত উৎসব। সেখানে একপ্রকার শান্তি নিকেতনের আদল আনতে চেয়েছিলেন উদ্দোক্তা ক্লাবের সদস্যরা। বসন্ত উৎসবের আনন্দ গায়ে মাখতে সেখানে হঠাৎ করেই চলে আসেন কালচিনির তৃণমূল প্রার্থী পাশাং লামা। তিনিও প্রাণভরে দোল খেলেন সবার সাথে। যদিও তিনি বলেন ভোটের প্রচার করতে তিনি আসেননি। আসলে বসন্ত উৎসব এলেই ছেলে বেলার আনন্দের কথা মনে পড়ে যায়। তাই তিনি বসন্ত উৎসবের আনন্দে সামিল হতে চলে এসেছেন।

এদিন সকালে প্রথমে এলাকার তরুনী ও মহিলারা একটি বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা বের করেন। শ্রমিক কল্যান কেন্দ্র বের হয়ে শোভাযাত্রাটি হাসিমারার বিভিন্ন এলাকা পরিক্রমা করে। অগ্ৰগামি ক্লাবের সভাপতি মনোজ বরুয়া বলেন, ‘এনিয়ে ক্লাবের তরফে তৃতীয় বার বসন্ত উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। অস্থির পৃথিবীতে বাসিন্দাদের একটু স্বস্তি দিতে আমরা বসন্ত উৎসব পালনের উদ্যোগ নিয়েছি।’ ক্লাবের কার্যনির্বাহী সভাপতি ও সাংস্কৃতি সম্পাদক রানা সাহা ও বাবুন সাহা বলেন, ‘বাড়ির গৃহবধু, শিশু, কিশোর, কিশোরিরা বছরের একটা দিন মন ভরে আনন্দে মেতে ওঠেন বসন্ত উৎসবে সামিল হয়ে।’

- Advertisement -