১৫ হাজার প্রাথমিক শিক্ষকের তালিকা চাইল হাইকোর্ট

160
সংগৃহীত ছবি

কলকাতা: প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে ফের দুর্নীতির ইঙ্গিত। ১৫ হাজারেরও বেশি কর্মরত প্রাথমিক শিক্ষকের তালিকা চেয়ে পাঠালেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি। ২০১৪ সালের প্রাথমিক টেট অনুয়ায়ী ২০১৭ সালে প্রায় ১৫ হাজারের বেশি প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ করেছিল প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ কিন্তু সেই নিয়োগে দেখা যায় একাধিক প্রার্থীকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র না থাকা সত্বেও নিয়োগ করা হয়েছে। শুধুমাত্র উত্তর দিনাজপুর জেলায় এমন ১৩ জনের খোঁজ পাওয়া গিয়েছে যারা টেট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ না হয়েও প্রাথমিক স্কুলে শিক্ষক হিসাবে নিযুক্ত হয়েছিলেন। এর বিরুদ্ধে বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের সিঙ্গল বেঞ্চে মামলা দায়ের হলেও তিনি বিষয়টির মধ্যে বড় দুর্নীতির ইঙ্গিত পেয়ে বৃহত্তর স্বার্থে মামলাটি জনস্বার্থ হিসেবে বিবেচনা করে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন।

ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ আগেই প্রাথমিক শিক্ষা সংসদকে কতজন এই রকম প্রার্থী রয়েছে তা খুঁজে বের করে আদালতকে জানাতে বলেছিল। কিন্তু এদিন প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ সেই সংখ্যা জানাতে না পারায় ক্ষুব্ধ ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি আগামী ২২ সেপ্টেম্বর ১৫ হাজারের পুরো তালিকা আদালতে জমা করার নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘সংসদ না পারে আদালত খুঁজে বের করবে। স্বাভাবিকভাবে ২০১৪ সালের টেটের ভিত্তিতে যে নিয়োগ হয়েছিল তাতে বড় দুর্নীতির ইঙ্গিত পাচ্ছেন আইনজীবীরা।’

- Advertisement -