বর্ষা আসন্ন, বুড়ি তোর্ষায় সেতুর কাজ শুরু মহাসড়ক কর্তৃপক্ষের

88

ফালাকাটা: ফালাকাটা-আলিপুরদুয়ার সড়কের বুড়ি তোর্ষায় পুরোনো কাঠের সেতুর একাংশ ভেঙে মহাসড়কের জন্য পাকা সেতুর কাজ শুরু হয়েছিল। এদিকে শুকনো মরশুমে জল না থাকায় নদীর ওপর দিয়েই যানবাহন চলাচল করছিল। করোনা পরিস্থিতির কারণে সম্প্রতি কাজ বন্ধ হয়ে যায়। এদিকে বর্ষা আসন্ন। তাই দ্রুত গতিতে এখন যোগাযোগ ব্যবস্থা ঠিক রাখার জন্য পুরোনো কাঠের সেতু জোড়াতালি দিয়ে মেরামত শুরু করল মহাসড়ক কর্তৃপক্ষ।

প্রায় আড়াই বছর থেকে ফালাকাটা-সলসলাবাড়ি ৪১ কিমি রাস্তায় চার লেনের ইস্ট-ওয়েস্ট করিডরের কাজ চলছে। কিন্তু জমি অধিগ্রহণ সংক্রান্ত জটিলতা ও করোনা পরিস্থিতির কারণে বার বার এই রাস্তার কাজ ধাক্কা খাচ্ছে। ফালাকাটার কাছাকাছি এই রাস্তায় বেশ কয়েকটি পুরোনো কাঠের সেতু বর্ষাকালে বাসিন্দাদের উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এজন্য মহাসড়ক কর্তৃপক্ষ অবশ্য স্থায়ী পাকা সেতুর কাজও শুরু করে। ফালাকাটা থেকে আলিপুরদুয়ার যাওয়ার পথে তিন নম্বর কাঠের সেতুটি বুড়ি তোর্ষা নদীর ওপর।

- Advertisement -

মহাসড়ক কতৃপক্ষ সূত্রে খবর, ফোর লেনের রাস্তার জন্য এই বুড়ি তোর্ষায় দুটি পাকা সেতু তৈরির প্রাথমিক কাজ শুরু হয়েছিল। এদিকে শুকনো মরশুমে এই নদীতে জল প্রায় থাকে না। তাই পুরোনো কাঠের সেতুর একাংশ ভেঙে ফোর লেনের সেতুর কাজ চলতে থাকে। নদীর ওপর দিয়েই যানবাহন চলাচল করছে। কিন্তু করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে কমার্শিয়াল অক্সিজেন সিলিন্ডারের সংকট শুরু হয়। শ্রমিকেরও আকাল দেখা দেয়। এজন্য পাকা সেতুর কাজ থমকে যায়। এদিকে ভারী বৃষ্টি হলেই বুড়ি তোর্ষা নদী প্লাবিত হবে। তখন যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাই যোগাযোগ ব্যবস্থা যাতে বন্ধ না হয় সেজন্য মূল সেতুর কাজ বন্ধ থাকলেও আপাতত পুরোনো কাঠের সেতুটির মেরামত শুরু করল মহাসড়ক কর্তৃপক্ষ। যাবতীয় সুরক্ষাবিধি মেনে অল্প শ্রমিক লাগিয়ে এই কাঠের সেতুর কাজ চলছে।

স্থানীয় বাসিন্দা তথা অটোচালক শংকর বর্মন বলেন, ‘ভারী বৃষ্টি হলেই বুড়ি তোর্ষা নদীর ওপর দিয়ে কোনও যানবাহন চলাচল কর‍তে পারে না। এতদিন কাঠের সেতুটিরও একাংশ ভেঙে ছিল। এখন দ্রুত সেতুটি মেরামত করলে ভালো হয়।’ মহাসড়ক কর্তৃপক্ষ সাইট ইঞ্জিনিয়ার চয়ন রায় বলেন, ‘বর্ষার জন্যই আপাতত পুরোনো কাঠের সেতুটি মেরামত হচ্ছে। যাতে যোগাযোগ ব্যবস্থা ঠিক থাকে। অল্প শ্রমিক দিয়ে সুরক্ষাবিধি মেনে কাজ চলছে। খুব দ্রুত সেতুর কাজ শেষ হবে।’