আশাকর্মীদের সাম্মানিক ১ হাজার টাকা বাড়ছে, ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

1411

অনলাইন ডেস্ক: পুজোর মুখে আশাকর্মীদের সাম্মানিক বাড়ালেন মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় ঘোষণা করেন, করোনা পরিস্থিতিতে ভালো কাজ করার জন্য আশাকর্মীদের সাম্মানিক ১ হাজার টাকা বাড়ানো হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতিতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে তাঁদের সমীক্ষার কাজেরও প্রশংসা করেন মুখ্যমন্ত্রী।

পাশাপাশি পুজো নিয়েও একগুচ্ছ ঘোষণা করেন মমতা। মণ্ডপে মাস্ক ও স্যানিটাইজার বাধ্যতামূলক। তৃতীয়ার দিন থেকে একাদশীর দিন অবধি রাতে পুজো দেখা যাবে। করোনা লকডাউনকে করে দিয়ে আমরা সবাইকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। মা আসবেন। সকলকে ভালো রাখবেন। মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, মণ্ডপে অতিরিক্ত ভিড় করা যাবে না। পুজোয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও করা যাবে না। মণ্ডপে বেশি সংখ্যাক স্বেচ্ছাসেবকের ব্যবস্থা রাখতে হবে। তাঁদের অবশ্যই ফেস শিল্ড পরতে হবে।

- Advertisement -

পাশাপাশি অঞ্জলি ও বিসর্জন নিয়েও মুখ্যমন্ত্রী কিছু নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে অঞ্জলি দেওয়ার ব্যবস্থা রাখতে হবে। ২-৩ বারে অঞ্জলি ও সিঁদুর খেলার বন্দোবস্ত করতে হবে। পাশাপাাশি একদিনে সমস্ত পুজোর বিসর্জন হবে না। মণ্ডপের তিনদিক খোলা রাখার পাশাপাশি মণ্ডপে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী। মণ্ডপে ঢোকা বেরোনোর জন্যও আলাদা রাস্তা রাখতে হবে।

এছাড়া প্রত্যেক পুজো কমিটিকে রাজ্য সরকার ৫০ হাজার টাকা করে দেবে ঘোষণা করেন মমতা। এদিন মুখ্যমন্ত্রী পুজোর উদ্যোক্তাদের জন্য একাধিক ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, দমকল কোনও ফি নেবে না। এছাড়া পুরসভা, পঞ্চায়েত কোনও ট্যাক্স নেবে না। বিদ্যুতেও ৫০ শতাংশ ছাড় মিলবে।

এদিন রীতিমত পরিসংখ্যান দিয়ে মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেন, ৩৪৮৩৭টি পুজো রয়েছে রাজ্য পুলিশের অধীনে। ২৫০৯টি পুজো রয়েছে কলকাতা পুলিশের অধীনে এবং ১৭০৬ মহিলা পরিচালিত পুজো রয়েছে। সকলকেই বলব, পুজো করুন। তবে একটু সাবধানে থাকুন।