গৃহবধূর অর্ধনগ্ন মৃতদেহ উদ্ধার, উত্তেজনা

118

মালদা: শোবার ঘর থেকে গৃহবধূর অর্ধনগ্ন মৃতদেহ উদ্ধারকে ঘিরে রহস্যের দানা বেঁধেছে। মৃতের বাপের বাড়ির লোকেদের অভিযোগ, পরপর তিন কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়ায় তাকে খুন করেছে তাঁর শ্বশুর বাড়ির লোক। অভিযোগ, মৃতার স্বামী দ্বিতীয় বিয়ে করে। এদিকে, স্বামী দ্বিতীয় বিয়ে করায় বিবাদ আরও চরম আকার ধারণ করে। তারই জেরে প্রথম স্ত্রীকে অভিযুক্ত খুন করেছে অনুমান পরিবারের লোকেদের। শুক্রবার সকালে ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ায় মালদার ইংরেজবাজার থানার শোভানগর পঞ্চায়েতের নতুনগর এলাকায়। ঘটনায় ইংরেজবাজার থানায় অভিযোগ দায়ের করলে ঘটনার তদন্তে নামে পুলিশ।

পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে মৃত গৃহবধূর নাম সাবিনা বিবি (৩০)। স্বামী শেখ রাসুল। তাঁদের পরিবারে তিন কন্যা সন্তান রয়েছে। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে গত প্রায় ১৪ বছর আগে সামাজিক মতে শেখ রাসেলের সাথে সাবিনা বিবির বিয়ে হয়। তাদের পরিবারে তিন কন্যা সন্তান রয়েছে। পরপর তিন কন্যা সন্তান হওয়াই সাবিনার উপর মানসিক ও শারীরিক অত্যাচার করত স্বামী শেখ রাসুল। দীর্ঘদিন ধরেই স্ত্রীর উপর অত্যাচার চালাত। পুত্র সন্তানের জন্য শেখ রাসুল গত তিন মাস আগে দ্বিতীয় বিয়ে করে। গ্রামেরই এক মহিলাকে বিয়ে করে। তারপর থেকেই প্রথম স্ত্রীর উপর আরও অত্যাচার বাড়তে থাকে। গত কয়েকদিন ধরে প্রথম স্ত্রীকে মারধোর ও করে। পরিবারে ব্যাপক বিবাদের সৃষ্টি হয়।

- Advertisement -

এরপর শুক্রবার সকালে হঠাৎ সাবিনা বিবির অর্ধনগ্ন দেহ শোয়ার ঘরে পড়ে থাকতে দেখে পরিবারের লোকেরা। খবর পেয়ে ছুটে আসে প্রতিবেশিরা। স্থানীয় বাসিন্দারা খবর দেয় ইংরেজবাজার থানায় ও মৃতের বাবার বাড়ির লোকেদের। পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেলে পাঠায়। খবর পেয়ে ছুটে আসে পরিবারের লোকের।

মৃতের এক আত্মীয় মাজলিক শেখ বলেন, ‘আমার ভাইঝির পরপর তিন কন্যা সন্তান হওয়ায় অত্যাচার করত তাঁর স্বামী। এছাড়াও গত তিনমাস আগে তাঁর স্বামী দ্বিতীয় বিয়ে করে। মাঝেমধ্যেই মেয়েকে মারধর করত। কন্যা সন্তানের জন্ম দেওয়াই মেয়েকে খুন করেছে। আমরা চাই ওর স্বামীর উপযুক্ত শাস্তি হোক।’

ইংরেজবাজার থানার আইসি মদন মোহন রায় জানান, থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। এদিকে, ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে পরিবারে।