মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করায় স্ত্রীকে খুনের চেষ্টা স্বামীর

208
ফাইল চিত্র

রায়গঞ্জ: মদ খাওয়ার প্রতিবাদ করায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে স্ত্রীকে খুনের চেষ্টা করার অভিযোগ উঠল স্বামীর বিরুদ্ধে। গলায় ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর জখম হয়েছেন ওই গৃহবধূ। বুধবার দুপুরে রায়গঞ্জ ব্লকের মহিপুর পঞ্চায়েতের প্রতাপপুর এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, জখম ওই গৃহবধূর নাম মঞ্জুরা বেগম(২০)। স্থানীয় বাসিন্দারা ঘটনাস্থলে গিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় গৃহবধূকে উদ্ধার করে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছোয় পুলিশ। অভিযুক্ত স্বামী সাদ্দাম হোসেন ঘটনার পর বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়। গৃহবধূর বাবার পরিবারের তরফে অভিযুক্ত স্বামীর বিরুদ্ধে ভাটল পুলিশ ফাঁড়িতে অভিযোগ জানানো হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত আট মাস আগে মঞ্জুরা বেগমের সঙ্গে সাদ্দাম হোসেনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই মদ খেয়ে বাড়িতে আসত স্বামী। অনেকবার মদ খাওয়া ছেড়ে দেওয়ার জন্য স্বামীকে অনুরোধ করতেন বধূ। অনেক চেষ্টা করেও স্বামীকে মদের নেশা থেকে বিরত করা সম্ভব হয়নি। এদিন দুপুরে একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটে। মদ খাওয়া ঘিরে স্বামী স্ত্রীর মধ্যে তুমুল ঝগড়া লাগে। ঘরে রাখা ছুরি দিয়ে সজোরে স্ত্রীর গলায় কোপ দেয় স্বামী। আট মাস ধরে বিয়ে হওয়ার পর দুইবার স্ত্রীর ওপরে হামলা করেছে স্বামী। প্রথমবার গলার নলি কেটে খুন করার চেষ্টা করে। সেবারেও প্রতিবেশীরা বাঁচিয়েছিল। শুধু নেশাগ্রস্তই নয় বাড়িতে ব্রাউন সুগার রেখে পুড়িয়া করে বিক্রি করে। এই সমস্ত কাজ থেকে বিরত থাকতে বলার জন্যই স্ত্রীর ওপর হামলা করে সে।

- Advertisement -

জখম গৃহবধূর মা গোলেনুর বেগম বলেন, ‘এর আগেও থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল। আজকেও করেছি।’ রায়গঞ্জ থানার পুলিশ আধিকারিক বলেন, ‘অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ।’