কুড়িয়ে পাওয়া সাড়ে চার লক্ষ টাকা ফিরিয়ে দিলেন লজ ব্যবসায়ী

358

রামপুরহাট: কুড়িয়ে পাওয়া প্রায় সাড়ে চার লক্ষ টাকা মালিকের হাতে তুলে দিলেন এক হোটেল ব্যবসায়ী। মঙ্গলবার সকালে ওই টাকা মালিকের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। টাকা ফেরত পেয়ে খুশি প্রদীপ মিশ্র নামে কলকাতার এক পান মশলা ব্যবসায়ী।

কলকাতার বড়বাজার এলাকার বাসিন্দা পান মশলা ব্যবসায়ী প্রদীপ মিশ্র ব্যবসার কাজে বীরভূমে এলে উঠতেন ১৪ নম্বর জাতীয় সড়কের ধারে রামপুরহাট মাড়গ্রাম মোড় সংলগ্ন লক্ষ্মী অনুষ্ঠান ভবনে। গত রবিবার সকালে হোটেল ছেড়ে যাওয়ার সময় একটি কালো প্লাস্টিকে জড়িয়ে ৪,৪৮,৫০২ টাকা হোটেলের বাইরে একটি চেয়ারের উপর ফেলে রেখে রায়গঞ্জ চলে যান। কেউ কেউ ওই চেয়ারে প্লাস্টিকের প্যাকেট দেখে আবর্জনা ভেবে ফেলে দিতে যান। কিন্তু হোটেল মালিক রবীন্দ্রনাথ মণ্ডল সেই প্যাকেট সযত্নে নিজের হেপাজতে রাখেন। বিকেলের দিকে সেই প্যাকেট খুলে দেখেন কয়েকটি ৫০০ টাকার বান্ডিল। এরপর ফের প্লাস্টিক জড়িয়ে রেখে সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে দেখতে পান সকাল ১০টার পর ওই টাকার বান্ডিল চেয়ারে অসাবধানবশত ফেলে গিয়েছিলেন প্রদীপ মিশ্র। এরপরই লজ ব্যবসায়ী যোগাযোগ করেন প্রদীপবাবুর সঙ্গে। মঙ্গলবার ওই টাকা ফিরিয়ে দেওয়া হল তাঁর সংস্থার কর্মী গণেশ কুমারের হাতে।

- Advertisement -

রবীন্দ্রনাথবাবু বলেন, ‘সত্যতাই আমাদের মূল ধন। অসৎ উপায়ে আয়ের উপর আমাদের কোনও লাভ নেই। আমরা ব্যবসা করেই বাকি জীবন কাটিয়ে দিতে চাই। তাই ওই টাকার বান্ডিল পাওয়ার পরও আমার মনে একটুও লোভ হয়নি। তাছাড়া ওই টাকা ফেরত না পেলে প্রদীপ মিশ্রর হয়তো চাকরি থাকত না।’ গণেশবাবু বলেন, ‘কোম্পানির লোক এখানে থাকতেন। তিনি অসাবধানবশত টাকাটা ফেলে গিয়েছিলেন। লজ ব্যবসায়ীর জন্যই টাকা ফেরত পেলাম।’

প্রদীপ মিশ্র বলেন, ‘ওই টাকা রামপুরহাটের ডিস্ট্রিবিউটারের কাছ থেকে নিয়ে রায়গঞ্জে কোম্পানির কাছে জমা দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু অসবাধানবশত আমি ফেলে এসেছি। ওই টাকা চলে গেলে আমি সারাজীবন কাজ করেও পরিশোধ করতে পারতাম না। লজ ব্যবসায়ী না থাকলে আমার সব চলে যেত।’