মালদা জেলায় সংখ্যা গরিষ্ঠ তৃণমূল, দাবি সভানেত্রী মৌসম নূরের

99

মালদা: মালদা জেলা পরিষদে সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্য রয়েছে তৃণমূলের। বৃহস্পতিবার গরিষ্ঠ সংখ্যক সদস্যদের জেলা তৃণমূলের সদর কার্যালয় নূর ম্যানশনে হাজির হয়ে এমনটাই দাবি জানালেন জেলা সভানেত্রী মৌসুম নূর। পাশাপাশি তিনি বিজেপিতে যোগ দেওয়া সভাধিপতি গৌরচন্দ্র মন্ডলের পদত্যাগ দাবি করেছেন। যদিও গৌরচন্দ্র মন্ডল তৃণমূল সভানেত্রীর এই দাবিগুলিকে একদমই আমল দিতে চাননি। তিনি বলেন, ‘যতক্ষণ আমাকে অপসারণ না করা হচ্ছে ততক্ষণ আমি সভাধিপতি। খেলা এখনও অনেক বাকি। দেখতে থাকুন।‘

সম্প্রতি খোদ সভাধিপতি গৌরচন্দ্র মণ্ডল সহ ১৪ জন জেলা পরিষদ সদস্য বিজেপিতে যোগদান করেন। তারপরেই শুভেন্দু অধিকারীর তরফে রাজ্যে বিজেপির সদর কার্যালয় হেস্টিংস সদস্যদের যোগদানের পরে দাবি করা হয়েছিল, এই প্রথম রাজ্যে কোন জেলা পরিষদের বোর্ড বিজেপির দখলে এল। কিন্তু তারপর থেকেই জেলা তৃণমূলের সভানেত্রী মৌসম নূরের নেতৃত্বে জেলা পরিষদের দলীয় সদস্যদের নিয়ে দফায় দফায় বৈঠক হয়। তাঁরা প্রমাণ করার চেষ্টা করেন যে গরিষ্ঠ সংখ্যক জেলা পরিষদ সদস্য দলের সঙ্গেই রয়েছেন। বৃহস্পতিবার দলীয় কার্যালয়ে তৃণমূল সভানেত্রী ২০ জন সদস্যকে হাজির করান। তাঁরা যে দলের সঙ্গেই আছেন, এই মর্মে একটি রেজুলেশন হয়। এরপরেই তৃণমূল সভানেত্রী মৌসুম নূর দাবি করেন জেলা পরিষদের ম্যাজিক ফিগার ১৯। তৃণমূলের সঙ্গে ২১ জন রয়েছেন। তাঁদের মধ্যে এদিন ২০ জন সদস্য হাজির হয়েছেন। মৌসম নূর জানান, বোর্ড তৃণমূলের ছিল, আছে, এবং তৃণমূলের থাকবে। একইসঙ্গে তিনি সভাধিপতির ইস্তফা দাবি করেছেন।

- Advertisement -

অন্যদিকে, জেলা পরিষদের সভাধিপতি গৌরচন্দ্র মন্ডল বলেন, ‘নিয়ম অনুযায়ী সভাধিপতি যেখানে বোর্ডও সেখানে। যতক্ষণ না আমাকে অনাস্থা প্রক্রিয়ার মাধ্যমে অপসারণ করা হচ্ছে ততক্ষণ বোর্ড আমার অধীনেই রয়েছে। যারা ওখানে গিয়েছেন তারা চাপে পড়ে এইসব কথা বলছেন।‘