সংখ্যালঘুদের মন পেতে মুসলিম রাষ্ট্রীয় মঞ্চের সভা চাঁচলে

225

চাঁচল: ভোটের মুখে বিজেপি সমর্থনকারী মুসলিম রাষ্ট্রীয় মঞ্চের সভা শনিবার সন্ধ্যায় হয়ে গেল চাঁচলের নওগাছিয়া গ্রামে। বিজেপি গ্রাম‍্য মুসলিমদের বোকা বানাচ্ছে, এমনটাই কটাক্ষ তৃণমূল কংগ্রেস সংখ‍্যালঘু সেলের। নতুন বছরের আগমনে রাজ‍্যে মুসলিম ভোট ব‍্যাঙ্ক আকড়ে ধরে রাখতে প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে বঙ্গ বিজেপি।

মালদা সহ চাঁচলে মুসলিম সম্প্রদায়ের মধ‍্যে বিজেপির প্রভাব বাড়াতে উদ‍্যোগী হয়েছেন গেরুয়া শিবির। তারই মধ‍্যে বিজেপির সমর্থনকারী মুসলিম রাষ্ট্রীয় মঞ্চের সভা হয়ে গেল শনিবার সন্ধ্যায়। সে সভা থেকে বিজেপির দ্বারা মুসলিম সম্প্রদায়ের উন্নয়ন তুলে ধরা হয়। মুসলিম রাষ্ট্রীয় মঞ্চ পশ্চিমবঙ্গ শাখার উদ‍্যোগে মালদার চাঁচল বিধানসভা এলাকায় এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভার মূল বক্তব্য ছিল মুসলিম মহিলাদের অগ্রাধিকার পাইয়ে দেওয়াই অন‍্যতম ভূমিকা থাকবে তাদের।

- Advertisement -

এদিনের সভায় উপস্থিত ছিলেন মুসলিম রাষ্ট্রীয় মঞ্চের রাজ্য কনভেনার আলি আফজাল চাঁদ। সঙ্গে ছিলেন জাতীয় মুসলিম রাষ্ট্রীয় মঞ্চের কনভেনার মহম্মদ আফজল সহ উত্তর মালদা মঞ্চের আইটি সেলের কনভেনার মহম্মদ মুসলিম। এই উত্তর ও দক্ষিন মালদা দুটি লোকসভা কেন্দ্রে সভা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছে সংগঠন।

মুসলিম রাষ্ট্রীয় মঞ্চের সভাশেষে সাংবাদিকদের বিবৃতি দিতে গিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দাগেন রাষ্ট্রীয় মুসলিম মঞ্চের আলি আফজাল চাঁদ। তিনি জানান, মুসলিমরা পরম্পরায় শাসকদলের সাথেই অঙ্গাঅঙ্গি ভাবে জড়িয়ে থাকে। ৩৪ বছর ধরে বামেরা রাজ‍্য দখলের অন‍্যতম ভূমিকা মুসলিমরাই সেইমতো তৃণমূল সরকার ১০ বছর ধরে ক্ষমতাই রয়েছে মুসলিমদের ভোটের জন‍্যই বলে দাবি করেন আলি আফজল চাঁদ। বর্তমানে অন‍্যান‍্য দল সহ তৃণমূল থেকে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন অনেকেই। মুসলিমরাও যোগ দিচ্ছে বলে দাবি করছেন আলি আফজল চাঁদ। একুশের পরে তৃণমূল দলে পিসি-ভাইপো ছাড়া কেউ থাকবে না বলে কটাক্ষ করেই ফেললেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, ‘মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষদের জন্য কোন উন্নয়ন করেনি রাজ্য সরকার শুধুমাত্র লোক দেখানো কাজ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার ফলস্বরূপ আজ মুসলিম সমাজের মানুষজন পিছিয়ে রয়েছে। মুসলিম সমাজের মানুষদের শিক্ষা নেই, চাকরি নেই, কর্ম নেই। তাই সকল মুসলিম সমাজের মানুষকে জাতীয়তাবাদী হওয়ার জন্য সকলের বাড়ি বাড়ি ঘরে ঘরে পৌঁছাবে মুসলিম রাষ্ট্রীয় মঞ্চ।’

এদিকে, মালদা জেলা তৃণমূল কংগ্রেস সংখ‍্যালঘু সেলের জেলা সভাপতি মুসারফ হোসেন বলেন, ‘বিজেপি মুসলিম ভোট আকড়ে ধরে রাখতে পারছে না কারণ তাঁরা সভার মাধ‍্যমে প্রকাশ‍্যে মুসলমানকে হুমকি দিচ্ছে।বঙ্গে বিজেপি ধর্মের নামে ভোট ব‍্যাঙ্ক করতেই গ্রামাঞ্চলে চুপিসারে লোক পাঠাচ্ছে বলে দাবি তৃণমূল সংখ‍্যালঘু সেলের।’

তিনি আরও বলেন, ‘রাজ‍্য সরকারের উন্নয়ন রাস্তায় দাড়ালেই দেখা যাবে। যারা অন্ধভক্ত তারাই শুধু দেখতে পাবেনা।আর মুসলিমদের জন‍্য শুধু কাজ করেনা না রাজ‍্য সরকার। সবার জন‍্য কাজ করে। বিজেপি একটা সাম্প্রদায়িক দল।ভোটের মূখে গ্রামে গ্রামে লোক পাঠাচ্ছে বিজেপি। আর গ্রামের নিরীহ সংখ‍্যালঘু মহিলাদের ভুল বোঝাচ্ছেন। বাংলার মানুষ মমতার সাথে আছে।তা বিধানসভাতেই হাড়ে হাড়ে টের পাবে বিজেপি।’