সুনীল অরোরাকে গোয়ার রাজ্যপাল করতে চায় মোদি সরকার

208

নয়াদিল্লি: রঞ্জন গগৈর পর এবার সুনীল অরোরা। অবসরপ্রাপ্ত মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরাকে গোয়ার রাজ্যপাল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র সরকার। সরকারী সূত্রে কোনও চূড়ান্ত নির্দেশনামা জারি না হলেও প্রাক্তন মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের এই নয়া পদ নিয়ে তুমুল জল্পনা শুরু হয়েছে।

পাঁচ রাজ্যের নির্বাচন চলাকালীনই অবসর নিয়েছেন সুনীল অরোরা। মেয়াদ ফুরোতেই এই অবসর। তাঁর জায়গায় নতুন মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের পদে বসেছেন সুশীল চন্দ্র। অরোরার অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করার দায়িত্ব নিয়েছেন তিনিই। রাজ্যের আট দফা নির্বাচনের প্রথম চার দফা সম্পন্ন হয় অরোরার নেতৃত্বে, শেষ চার দফা শেষ হবে সুশীল চন্দ্রের তত্ত্বাবধানে। কিন্তু এর মধ্যে অরোরা’কে নিয়ে নতুন করে শুরু হয়েছে জল্পনা। মনে করা হচ্ছে খুব শিগগিরই গোয়ার রাজ্যপাল হিসেবে তাঁকে নিযুক্ত করতে পারে কেন্দ্র। ১৯৮০ সালের ব্যাচের রাজস্থান ক্যাডারের আইএস দীর্ঘদিন তথ্যপ্রযুক্তি দফতরের আধিকারিক থেকেছেন। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে মাসের প্রথম দিনে সুনীল অরোরা নির্বাচন কমিশনে যোগ দেন। মনে করা হচ্ছে প্রশাসনিক দক্ষতার পুরস্কার হিসেবেই তাঁকে গোয়ার রাজ্যপাল মনোনীত করতে পারে কেন্দ্র। যদিও এই বিষয়ে এখনও কোনও বার্তা দেয়নি কেন্দ্র, মুখ খোলেননি অরোরাও।
প্রসঙ্গত, গোয়ায় বেশ কয়েক মাস ধরেই কোনও রাজ্যপাল নেই। সত্যপাল মালিককে পদ থেকে সরানোর পর এই অতিরিক্ত দায়িত্ব পালন করে এসেছেন মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল ভগৎ সিং কোশিয়ারি। এখন সুনীল আরোরা দায়িত্ব নিলে তাঁকে অব্যাহতি দেবে কেন্দ্র। তবে ভোট চলাকালীন অরোরাকে রাজ্যপাল বানানোর জল্পনা আরও একবার বিতর্কের মুখে ফেলেছে কেন্দ্রকে৷ অনিবার্য ভাবে উঠে এসেছে প্রাক্তন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের প্রসঙ্গ। অবসরের পর তাঁকেও রাজ্যসভায় জায়গা করে দিয়েছিল বিজেপি। তা নিয়ে জলঘোলা হয় যথেষ্ট। গগৈর পর এবার সুনীল অরোরাকে নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা। মনে করা হচ্ছে পাঁচ রাজ্যের নির্বাচনী প্রক্রিয়া, বিশেষ করে বাংলার নির্বাচনে বিরোধী তৃণমূলকে কোনঠাসা করার চেষ্টার পুরষ্কার স্বরূপ অরোরার ‘ঝুলি’তে গোয়ার রাজ্যপালের ‘পুরষ্কার’ তুলে দিল মোদি সরকার৷

- Advertisement -