আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালে দ্রুত চালু হচ্ছে নতুন বিল্ডিং

249

ভাস্কর শর্মা, আলিপুরদুয়ার : সব ঠিকঠাক থাকলে আগামী ডিসেম্বর মাসেই উদ্বোধন হবে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালের নতুন বিল্ডিং। চারতলা ওই বিল্ডিংয়ের কাজ ইতিমধ্যেই প্রায় শেষ হয়ে গিয়েছে। এখন চলছে বিদ্যুদয়নের কাজ। বিল্ডিংটি উদ্বোধন হয়ে গেলে সেখানে হাসপাতালের নার্সদের থাকার যেমন ব্যবস্থা করা হবে তেমনি ক্যান্টিনও চালু করা হবে। এ বিষয়ে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালের রোগীকল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান বিধায়ক সৌরভ চক্রবর্তী বলেন, জেলা হাসপাতালের পরিকাঠামো ঢেলে সাজানো হচ্ছে। ইতিমধ্যেই রোগীদের জন্য নতুন ওয়ার্ড চালু করা হয়েছে। এখন চারতলা বিল্ডিংটি দ্রুত উদ্বোধন করে সেখানে সিনিয়ার নার্সদের থাকার ব্যবস্থা করা হবে। সঙ্গে রোগী ও তাঁর আত্মীয়দের সুবিধার জন্য একটি ক্যান্টিনও চালু করা হবে।

২০১৪ সালে আলিপুরদুয়ার মহকুমা হাসপাতালটিকেই জেলা হাসপাতালের মর্যাদা দেওয়া হয়। ওই সময় সামান্য পরিকাঠামো নিয়ে জেলা হাসপাতালের পরিষেবা শুরু হয়। জেলা হাসপাতাল হওয়ার পরেই এখানে বাড়তে থাকে রোগীদের চাপ। প্রতিদিন প্রায় দুই হাজার রোগী নানা কারণে জেলা হাসপাতালে আসেন। আবার জেলা হাসপাতাল হওয়ার পরেই এখানে বাড়ানো হয় ডাক্তার ও নার্স সহ অন্য স্বাস্থ্যকর্মীর সংখ্যা। বর্তমানে জেলা হাসপাতালে প্রায় ৭০ জন চিকিৎসক রয়েছেন। নার্স আছেন প্রায় ১৪০ জন এবং অন্য স্বাস্থ্যকর্মীর সংখ্যাও প্রায় ৫০ জন। কিন্তু অভিযোগ, জেলা হাসপাতালে এত কর্মী থাকা সত্ত্বেও তাঁদের থাকার জন্য এতদিন তেমন কোনও ভালো ব্যবস্থা ছিল না হাসপাতালে। বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ বাড়ছিল হাসপাতালের ডাক্তার, নার্স থেকে শুরু করে অন্য স্বাস্থ্যকর্মীদের।

- Advertisement -

জেলা হাসপাতাল সূত্রে খবর, গত প্রায় তিন বছর আগে জেলা হাসপাতালে একটি আধুনিকমানের বিল্ডিং তৈরির প্রস্তাব স্বাস্থ্য ভবনে পাঠানো হয়। এরপর স্বাস্থ্য ভবন বিল্ডিংয়ে অনুমোদন দিলে কাজ করার বরাত পায় পূর্ত দপ্তর। অভিযোগ, পূর্ত দপ্তর প্রায় আড়াই বছর আগে বিল্ডিং তৈরির কাজ শুরু করলেও তা ঢিলেমিতে চলছিল। বিষয়টি নিয়ে জেলা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষও ক্ষুব্ধ হয়। হাসপাতালের রোগীকল্যাণ সমিতি পূর্ত দপ্তরের ওপর চাপ বাড়ায়। এর পরেই পূর্ত দপ্তর ওই বিল্ডিংয়ে কাজ এখন প্রায় শেষ করে ফেলেছে। বাকি কাজ আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই হয়ে যাবে বলে দপ্তর সূত্রে খবর। বিল্ডিংয়ে বিষয়ে আলিপুরদুয়ার জেলা হাসপাতালের সুপার চিন্ময় বর্মন বলেন, পূর্ত দপ্তর আমাদের হাতে দাযিত্ব তুলে দিলেই বিল্ডিংটি উদ্বোধন করা হবে। বিল্ডিংটি চালু হলে নার্সরা যেমন থাকতে পারবেন তেমনি বেশ কয়েটি নতুন বিভাগও খোলা হবে।