ভূমিহীনদের হাতে পাট্টা তুলে দিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী

68

বক্সিরহাট: ভোটের মুখে ভূমিহীনদের মধ্যে পাট্টা বিলি করলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। বুধবার তুফানগঞ্জ-২ পঞ্চায়েত সমিতির হলঘরে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রায় ১৩৪ জন উপভোক্তার হাতে জমির খতিয়ান সহ পাট্টা তুলে দেওয়া হয়। ভোটের প্রাক্কালে জমির পাট্টা প্রদানের ঘটনা সামনে আসতেই শাসকদলের বিরুদ্ধে সরব ডান-বাম সমস্ত রাজনৈতিক দলই। যদিও শাসকদলের নেতা-মন্ত্রীরা তাতে কর্ণপাত করতে নারাজ। তাদের বক্তব্য, সারা বছরই এধরণের কর্মসূচি জারি থাকে।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কোচবিহার জেলা পরিষদের সহ সভাপতি পুষ্পিতা রায় ডাকুয়া, জেলা পরিষদের সদস্য নৃপেন দাস, তুফানগঞ্জ-২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি কল্পনা সিংহ বর্মন, সহ সভাপতি স্বপন কুমার সাহা, বিডিও প্রসেনজিৎ কুন্ডু প্রমুখ। বিএলএলআরও সুবিমল চক্রবর্তী জানান, ব্লক এলাকার ১৩৪ জন বাসিন্দাদের হাতে ব্লক ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের উদ্যোগে জমির খতিয়ান সহ পাট্টা দেওয়া হয়।

- Advertisement -

পাট্টা প্রদান প্রসঙ্গে মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ জানান, এই পাট্টা বিলির সঙ্গে ভোটের কোনও সম্পর্ক নেই। যে সব মানুষ কলোনীতে, খাস জমিতে বসবাস করেন বা যাদের নিজস্ব জায়গা জমি কিছু নেই সেসব ভূমিহীন মানুষের বাসস্থানের চাহিদা পূরণ করে স্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ করে দিতেই খতিয়ান সহ এই পাট্টা দেওয়া হল। লক্ষ্য তাঁরা নিজেরা একটি স্থায়ী ঠিকানা পান ও অন্যান্য সরকারি সুযোগ সুবিধা নিতে পারেন।

এদিনের পাট্টা বিলি কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখতে গিয়ে জেলায় সরকারি উন্নয়নের ফিরিস্তি তুলে ধরেন মন্ত্রী। একইসঙ্গে বিজেপি শাসিত প্রতিবেশি রাজ্য অসমের প্রসঙ্গ তুলে কেন্দ্রের শাসকদলের বিরুদ্ধে সরব হন তিনি।তাঁর কথায় অসমের মানুষ অনেক সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত। অসমে চিকিৎসা ব্যবস্থা না থাকায় অসম থেকে দলে দলে মানুষ বিনে পয়সায় চিকিৎসার সুযোগ নিতে কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ার সহ রাজ্যের সরকারি হাসপাতালগুলিতে আসেন। পরবর্তীতে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, এ রাজ্যে কাজের কোনও অভাব নেই। ভারতের মানুষ হিসেবে এক রাজ্যের মানুষ অন্য রাজ্যে যায়। এ রাজ্য থেকে যারা ভিন রাজ্যে যায় তার চেয়ে অনেক বেশি মানুষ বিহার, উত্তরপ্রদেশ থেকে এ রাজ্যে আসে।