ক্রমেই বাড়ছে জ্বরে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা, উত্তরে বাড়ছে উদ্বেগ

71

উত্তরবঙ্গ ব্যুরো: উত্তরবঙ্গ জুড়েই শিশুদের জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা বড় আকার ধারণ করছে। গত ২৪ ঘন্টায় উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন হাসপাতালে জ্বরে, সর্দিকাশি, শ্বাসকষ্টে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছে ২৮৭ শিশু। এই মূহুর্তে উত্তরবঙ্গে সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশুর সংখ্যা ৭৬০। মালদাতে সবচেয়ে বেশি ১৯৬ জন শিশু জ্বর পেটখারাপের মতো উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন বলে জানা গিয়েছে। বুধবার জলপাইগুড়ি সদর হাসপাতালে আরও একটি শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তিনমাস বয়সি শিশুটির বাড়ি ময়নাগুড়িতে। গত রবিবার থেকে শিশুটির সর্দি-কাশির সঙ্গে শ্বাসকষ্টের সমস্যা শুরু হয়। এরপর মঙ্গলবার সকালে শিশুটিকে ময়নাগুড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে শিশুটির চিকিৎসা না করেই ফিরিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এরপর বুধবার ভোরে জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতালে শিশুটিকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে শিশুটিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। এদিন জলপাইগুড়ি জেলা হাসপাতাল পৌঁছোন পাঁচ সদস্যের মেডিকেল টিম। গোটা পরিস্থিতির উপর নজর রেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যকর্তারা।

মালবাজার সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের শিশু অন্তর্বিভাগ সূত্রে জানা গিয়েছে, বুধবার দুপুর পর্যন্ত হাসপাতালের শিশু বিভাগে ৬৮ জন শিশু ভর্তি রয়েছে। এর মধ্যে ৩৪ জনই জ্বরে আক্রান্ত। তবে প্রত্যেকেরই শারীরিক পরিস্থিতি স্থিতিশীল। এদিন মাল পুরসভার তরফে এক প্রতিনিধি দল হাসপাতাল এবং শিশু অন্তর্বিভাগ পরিদর্শন করেন। শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালে এদিন বিকেল পর্যন্ত ৭৫ জন শিশু জ্বর ও পেটখারাপের মতো উপসর্গ নিয়ে ভর্তি হয়েছে। ওপিডিতে চিকিৎসা হয়েছে প্রায় ১৭৫ জন শিশুর। অন্যদিকে, এদিন দুপুর পর্যন্ত ২৪ জন শিশুকে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের শিশু বিভাগে ভর্তি করা হয়। এনিয়ে উদ্বেগ বেড়েছে। যদিও স্বাস্থ্য দপ্তরের দাবি, করোনা পরীক্ষা করা হলেও এখনও পর্যন্ত কারও সংক্রমণ ধরা পড়েনি। এনিয়ে উদ্বেগ ছড়িয়েছে চিকিৎসাধীন শিশুদের অভিভাবকদের মধ্যে। রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অধ্যক্ষ কৌশিক সমাদ্দার জানান, জ্বরে আক্রান্ত শিশুদের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় আলাদা ওয়ার্ড খোলার প্রক্রিয়া চলছে।

- Advertisement -