দুঃস্থদের পুজোর আয়োজন দিনহাটা ক্লাবের

351

দিনহাটা: চারিদিকে যখন মানুষে মানুষে হিংসা বিদ্বেষের বাতাবরণ। তখন সেই মানুষদেরই পুজোর মধ্যে দিয়ে সমাজকে এক বিশেষ বার্তা দিলেন দিনহাটা বয়েজ রিক্রিয়েশন ক্লাবের সদস্যরা। শনিবার এরকমই সমাজের ২৪০ জন দুঃস্থ অসহায় মানুষকে দেবতা জ্ঞানে কাসর, ঘন্টা, ঢাকের আওয়াজে পুজো করল ক্লাবের সদস্যরা এবং এবছর নিয়ে তাদের এই কর্মসূচী নবম বর্ষে পড়ল। এদিনের মানব পুজোয় উপস্থিত ছিলেন হাসপাতাল সুপার রনজিৎ মন্ডল, অধ্যাপক জয়দেব সরকার, ক্রিড়াবিদ চন্দন সেনগুপ্ত সহ অন্যান্যরা।

এদিন দুঃস্থ মানুষদের নির্দিষ্ট আসনে বসিয়ে কপালে চন্দনের তিলক কেটে, ফুলের মালা পড়িয়ে, শঙ্খ-কাসর বাজিয়ে পুজো করেন উপস্থিত অতিথিরা। একদিকে যখন মানুষে মানুষে হিংসা হানাহানির মত ঘটনা ঘটছে তখন এধরণের উদ্যোগ সত্যিই সৌভ্রাতৃত্বের বন্ধন তৈরি করবে বলেই মনে করছেন বাসিন্দাদের একাংশ।

- Advertisement -

অন্যদিকে এতদিন যারা মাটির গড়া প্রতিমাকেই পুজো হতে দেখে এসেছেন আজ তারাই সুনির্দিষ্ট আসনে বসে পূজিত হচ্ছেন তাভেবেই খুশি হয়েছেন পূজিতরা। ভিলেজ ১ এর বাসিন্দা গীতা বর্মন জানান, গত কয়েকবছর থেকেই ক্লাবটি এই উদ্যোগ গ্রহণ করে আসছে, আজ সেই উদ্যোগে তিনি আংশিদার হতে পেরে খুশি।

একই বক্তব্য পচা বর্মনেরও। তিনি জানান, এতদিন প্রতিমাকেই পুজো হতে দেখেছি। তাই তাদেরকেও যখন এভাবে পুজো করা হচ্ছে তখন সেটা সত্যিই এক অন্য রকম আনন্দের মুহুর্ত।

এদিনের কর্মসূচী সম্পর্কে ক্লাব সম্পাদক অর্ঘ্য কমল সরকার জানান, এদিন ২৪০ জন দুঃস্থ মানুষ মানব পুজোয় অংশ গ্রহণ করেন। তাদের এদিন পুজো করার পাশাপাশি তাদের হাতে তুলে দেওয়া হয় শীতবস্ত্র ও দুপুরের খাবার প্যাকেট। তবে করোনা আবহে অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য সুরক্ষার দিকে লক্ষ্য রেখে কর্মসূচী কিছুটা সংক্ষিপ্ত করা হয় এদিন।