পতিরামে শুরু কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুটমার্চ

181

পতিরাম: আগামী ২৬ এপ্রিল দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার ৬ টি আসনে বিধানসভার ভোট। পতিরাম থানার অধীনে থাকা পাচঁটির মধ্যে চারটি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা রয়েছে ৪০ নম্বর তপন (তপশিলি উপজাতি) বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্ভুক্ত। বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী এই সমস্ত এলাকার একাংশে রবিবার প্রথমবারের মতো রুটমার্চ করল কেন্দ্রীয় বাহিনী। এদিনের রুটমার্চে নেতৃত্ব দেন মাত্র দুই সপ্তাহ আগে গঠিত নতুন পতিরাম থানার ওসি বিরাজ সরকার।

কেন্দ্রীয় বাহিনীর এই রুটমার্চের উদ্দেশ্য হল, নির্বাচনের পূর্বে ভোটারদের মনে ভয় ,ভীতি , আশঙ্কা দূর করে সাহস জোগানো যাতে তাঁরা নির্বিঘ্নে তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে পারেন। বলা বাহুল্য, কেন্দ্রীয় বাহিনীর প্রথমদিনের রুটমার্চের ফলে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী এলাকার ভোটার থেকে শুরু করে আম জনতা সকলে।

- Advertisement -

রবিবার সকাল ৯ টা নাগাদ কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুটমার্চ শুরু হয় পতিরাম থানার অধীন বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী গ্রাম কামালপুর ও ইনদ্রা গ্রামে। সেখানকার দুটি বুথ ও তাদের অধীনে থাকা বিভিন্ন পাড়ায় রুট মার্চ করে দিল্লি থেকে আসা বাহিনী। অতঃপর তাঁরা চলে যান ঠাকুরপুরা বাজার ও ডাঙবিরল গ্রাম তথা বিভিন্ন ছোট ছোট পাড়ায়। ভারী বুটের শব্দ আর সশস্ত্র বাহিনীর চলা ফেরায় গ্রামের মানুষ কিছুটা হতচকিত হলেও পরে তাঁরা সব বুঝতে পেরে খুশি হয়।

এদিনের কেন্দ্রীয় বাহিনীর শেষ রুটমার্চ দেখা যায় একেবারে বাংলাদেশ সীমান্ত ঘেঁষা কুমারগ্রাম তথা জিরো পয়েন্ট এলাকায়। ছোট, মাঝারি, বড় সব রাস্তা এবং ৫১২ নম্বর গাজল-হিলি জাতীয় সড়কেও এদিন এই বাহিনী রুটমার্চ করে কেন্দ্রীয় বাহিনী। বাহিনীর পথ নির্দেশ করেন পতিরাম থানার ওসি বিরাজ সরকার।

এই বাহিনীর রুটমার্চের বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে ওসি বিরাজ সরকার বলেন, ‘আজ পতিরাম থানা এলাকায় কেন্দ্রীয় বাহিনীর রুটমার্চ শুরু হল। আজ একটা দিক করা হল। এরপর নির্ধারিত রুটিন অনুযায়ী থানার বাকি অংশে পরবর্তী সময়ে রুট মার্চ অনুষ্ঠিত হবে।’ পতিরাম থানার অধীনে থাকা পাঁচটি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকাতেই পর্যায় ক্রমে এই রুট মার্চ পরিচালিত হবে বলে ওসি বিরাজ বাবু জানান।