বাবার থেকে টাকা আদায়ে অপহরণের নাটক ছেলের

111

কিশনগঞ্জ: ঋণ শোধ করতে বাবার থেকে টাকা আদায়ে মিথ্যা অপহরণের নাটক করে গ্রেপ্তার ছেলে। কিশনগঞ্জের কাপড় ব্যবসায়ী মিলাপচাঁদ দাগার ছেলে বিশাল দাগার এই মিথ্যা অপহরণের ঘটনা পুলিশের তদন্তে সামনে চলে এসেছে। বিশাল নিজেই বন্ধুদের সঙ্গে মিথ্যা অপহরণের ষড়যন্ত্র করে বলে পুলিশ জানিয়েছে। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত অভিযোগে ৩ জনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতদের নাম রোহিত সিং ওরফে বাবা, বিহারের দ্বারভাঙ্গার বাসিন্দা রূপেশ কুমার সিং ও বিশাল দাগা। ঘটনায় আরও একজন অভিযুক্ত রৌনক পলাতক বলে জানা গিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশ সুপার কুমার আশীষ জানান, ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

গত ১৭ মার্চ সকালে মিলাপচাঁদ দাগার ছেলে বিশাল বাড়ি থেকে বের হয়। সেদিনই সন্ধ্যা ৭টা ৪৫ মিনিট নাগাদ মিলাপবাবুর মোবাইলে ফোন আসে ছেলেকে অপহণ করা হয়েছে। ছেড়ে দেওয়ার বিনিময়ে ৬০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণও চাওয়া হয়। পরদিন ১৮ মার্চ মিলাপবাবু কিশনগঞ্জ সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। কিশনগঞ্জ পুলিশ তদন্তে জানতে পারে, যে মোবাইল থেকে মুক্তিপণের ফোন এসেছিল তার লোকেশন মুম্বইয়ের। এই মামলায় পূর্ণিয়া, কাটিহার, দ্বারভাঙ্গা থেকে বেশ কয়েকজনকে আটক করা হয়। এরপর পুলিশ সুপারের নির্দেশে কিশনগঞ্জ পুলিশের একটি দল মুম্বই পুলিশের সাহায্য চেয়ে, মুম্বই রওনা হয়।

- Advertisement -

এই দলে পাহারকাট্টা থানার ওসি আরিজ এহকাম ও সুমিত কুমার ছিলেন। সেখান থেকে রূপেশ কুমার সিংকে গ্রেপ্তার করা হয়। রূপেশ এই তথাকথিত অপহরণের সবকিছু পুলিশের জেরায় জানায়। পুলিশের জেরায় বিশালের বন্ধু রোহিত কুমার জানায়, বাজারে তার ৭০-৮০ লাখ টাকা ঋণ হয়ে যাওয়ায় অপহরণের পরিকল্পনা করে বিশাল। এই মামলায় পুলিশকে নাজেহাল করার অভিযোগে, আইপিসির ৩৬৪ এ, ৪২০, ১২০বি, ৩৫৩ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার আদালতের নির্দেশে ধৃতদের ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেপাজতে কিশনগঞ্জ জেলে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ সুপার জানান, আদালতে দ্রুত ট্রায়ালে দোষীরা শাস্তি পাবে।