কোচবিহারে জঙ্গলে ঢেকেছে নেতাজির মূর্তি

146

দেবদর্শন চন্দ, কোচবিহার : কোচবিহার শহরের কামেশ্বরী রোড সংলগ্ন ডাঙ্গরআই মন্দিরের পাশে থাকা নেতাজির মূর্তির আশপাশের এলাকা জঙ্গলে ভরে গিয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে সাফাই না হওয়ায় এই দশা হয়েছে। পুর কর্তৃপক্ষের নজরদারির অভাবে এভাবেই অনেক মনীষীর মূর্তি বেহাল দশায় রয়েছে বলে অভিযোগ। বছরে দুই-একদিন মূর্তিগুলি মালা এবং ফুলে সুসজ্জিত থাকতে দেখা গেলেও অন্যদিন মূর্তির খোঁজ কাউকে রাখতে দেখা যায় না। মনীষীদের জন্মদিন সহ বিশেষ দিনে মূর্তিতে মাল্যদান করতে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের সদস্যদের ভিড় জমাতে দেখা যায়। কিন্তু অনুষ্ঠানের পর আর মূর্তির খোঁজ নিতে কাউকে দেখা যায় না। এর আগেও শহরের অনেক জায়গায় মনীষীদের মূর্তি আবর্জনায় ঢাকা পড়েছিল। এরপর উত্তরবঙ্গ সংবাদের খবরের জেরে শহরের একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন বেশ কয়েকটি মূর্তি পরিষ্কার করেছিল। কিন্তু এখন নেতাজির মূর্তিটি ফের বেহাল দশায় রয়েছে। দীর্ঘদিন ধরে কামেশ্বরী রোড সংলগ্ন এলাকায় থাকা নেতাজি মূর্তির আশপাশে আবর্জনা জমে রয়েছে। এলাকাবাসী জানিয়েছেন, পর্যাপ্ত আলোর অভাবে সেখানে মাঝেমধ্যেই অসামাজিক কাজকর্ম দেখা যায়। দ্রুত মূর্তির আশপাশের এলাকা সাফাইয়ে দাবি তুলেছেন শহরের বাসিন্দারা।

শহরের বাসিন্দা সাগ্নিক চক্রবর্তী বলেন, শহরের বিভিন্ন জায়গায় থাকা মূর্তিগুলির দায়িত্ব নিক প্রশাসন। এতে শহরের সৌন্দর্য বজায় থাকবে। পাশাপাশি, মূর্তিগুলির ওপর শেডের ব্যবস্থা করা গেলে ভালো হয়। প্রাবন্ধিক দেবব্রত চাকী বলেন,  শহরের বিভিন্ন  জায়গায় থাকা মূর্তিগুলির বিষয়ে সমীক্ষা করে তালিকা তৈরি করা হোক। সারা বছর ধরে যাতে মূর্তিগুলির রক্ষণাবেক্ষণ করা হয়, সে বিষয়ে উদ্যোগ নেওয়া উচিত। এর আগেও মূর্তির ওপরে শেডের ব্যবস্থা করার কথা প্রশাসন এবং পুরসভাকে জানানো হয়েছে। কিন্তু লাভ হয়নি। এ বিষয়ে পুরসভার প্রশাসকমণ্ডলীর চেয়ারম্যান ভূষণ সিং বলেন, বিষয়টি শীঘ্র দেখা হবে। এ বিষয়ে শহরের বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনকে নিয়ে আলোচনায় বসব।

- Advertisement -