ফৌজদারি মামলা প্রত্যাহারের ওপর স্থগিতাদেশ, হাইকোর্টে বড় ধাক্কা খেল রাজ্য সরকার

103
সংগৃহীত ছবি

কলকাতা: নির্বাচনের মুখে আবার হাইকোর্টে ধাক্কা খেল রাজ্য সরকার। ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত একাধিক অপরাধীর মামলা প্রত্যাহারের নিম্ন আদালতের নির্দেশের উপর স্থগিতাদেশ কলকাতা হাইকোর্টের। প্রধান বিচারপতি টি বি এন রাধাকৃষ্ণণ ও অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়েছে, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এই স্থগিতাদেশ বজায় থাকবে। পাশাপাশি আরও অন্তত ৪০ জন এই রকম মামলায় অভিযুক্তদেরকে এই মামলায় পার্টি করার নির্দেশ প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চের। ২০০৭ সালে নন্দীগ্রাম আন্দোলনের সময় তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে থাকা একধিক মামলা প্রত্যাহার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলে একটা জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয় প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে।সেই মামলাতেই এই নির্দেশ।

রাজ্য সরকার নির্বাচনের সময় একাধিক খুনের মামলা, অপহরনের মামলা এবং খুনের উদ্দেশ্যে অপহরনের মামলা প্রত্যাহার করছে অথবা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এইভাবে এটা করা যায় না। দাবি করে কলকাতা হাইকোর্টে গত বুধবার দায়ের হয় জনস্বার্থ মামলাটি। ঐ দিনই প্রধান বিচারপতি মন্তব্য করেন, এইভাবে জঘন্য অপরাধীদের বিরুদ্ধে থাকা ফৌজদারি মামলা প্রত্যাহার করা যায় না।

- Advertisement -

এদিন মামলার শুনানিতে রাজ্যের তরফে এডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত বলেন, ‘মামলা প্রত্যাহারের ঘটনা শুধু এ রাজ্যেই নয় গোটা দেশে হচ্ছে। অন্যান্য রাজ্যের সাথে তুলনা করে পরিসংখ্যান দিয়ে দেখাক মামলাকারী তাহলেই বিষয়টি পরিষ্কার হয়ে যাবে।‘ তিনি আরও বলেন, ‘ম্যাজিস্ট্রেটের রায়ের বিরুদ্ধে এই ভাবে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা যায় না। যে সমস্ত মামলা নির্বাচনের মুহুর্তে প্রত্যাহার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলে আনা হচ্ছে সেটা ঠিক নয়।কারন ম্যাজিস্ট্রেট এই নির্দেশগুলো দিয়েছিলেন ২০২০ সালের জুন মাসে।’ যদিও শেষ পর্যন্ত অ্যাডভোকেট জেনারেলের এই যুক্তি টিকল না।