করোনার জেরে পুরবাজার বন্ধ করলেন ব্যবসায়ীরা

রেজাউল হক, পুরাতন মালদা : করোনার জেরে বন্ধ হয়ে গেল পুরবাজার। পুরাতন মালদার সবচেয়ে বড় এবং ব্যস্ত শরৎচন্দ্র মার্কেট এখন কার্যত শ্মশান। ইতিমধ্যে চাউর হয়ে গিয়েছে, করোনা পজিটিভ এক ব্যক্তি এই বাজারে ঘুরেছেন। মিষ্টি, চা খেয়েছেন। সেলুনে চুল-দাড়িও কামিয়েছেন। তারপর বাজার করে ওই ব্যক্তি বাড়ি ফিরেছেন। এতেই বাজারের শতাধিক ব্যবসায়ীর মধ্যে চরম আতঙ্ক ছড়িয়েছে। এর জেরে শুক্রবার সকাল থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য এই বাজার বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা করেছে ব্যবসায়ী মহল। যেসব দোকানি ওই করোনা পজিটিভ ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছিলেন, তাঁদের চিহ্নিত করে সোয়াব পরীক্ষার পরিকল্পনা নিয়েছে জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দপ্তর।

প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ১১ মে এই ব্লকের ভিনরাজ্য ফেরত দুই শ্রমিক করোনা আক্রান্ত বলে জানা যায়। এর মধ্যে একজন জলঙ্গা গ্রামের। সেদিন রাতে ওই শ্রমিককে প্রশাসনের তরফে পুরাতন মালদা নারায়ণপুর এলাকার কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। অবশ্য তার আগেই হোম কোয়ারান্টিনে থাকা ওই শ্রমিক এলাকা চষে বেড়ান। তিনি কোন কোন জায়গায় গিয়েছেন, কাদের সংস্পর্শে এসেছেন তা জেনে হতবাক প্রশাসন ও স্বাস্থ্য দপ্তরের কর্তারা। ওই শ্রমিকের কথামতোই এখন বিভিন্ন জায়গায় তাঁর সংস্পর্শে আসা মানুষদের শনাক্তকরণ করে সোয়াব টেস্টের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। প্রশাসনের একটি মহল জানাচ্ছে, ভিনরাজ্য ফেরত ওই পরিযায়ী শ্রমিক হোম কোয়ারান্টিনে থাকাকালীন শরৎচন্দ্র মার্কেটে আসেন। সেখানে একটি সেলুনে চুল-দাড়ি কামান। এরপর একটি মিষ্টির দোকানে মিষ্টি ও শিঙাড়া খান। পরে আরেকটি দোকানে গিয়ে চা খান। তারপরে কিছু কেনাকাটা করেন। যার মধ্যে সবজি ও পোশাক রয়েছে।

- Advertisement -

শুক্রবার সকালে গিয়ে দেখা যায়, ওই বাজার কার্যত শ্মশানে চেহারা নিয়েছে। জনশূন্য বাজারে ঘুরে বেড়াচ্ছে কুকুরের দল। অথচ এই বাজারে লকডাউনের মধ্যেও প্রতিদিন থিকথিক করত ভিড়। শরৎচন্দ্র মার্কেটের সম্পাদক কালাচাঁদ ঘোষ বলেন, এমন ঘটনা ঘটার পর বাজারের ৪০০টি দোকান আপাতত অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। প্রত্যেককে সজাগ থাকতে হবে। বাঁচার তাগিদে আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। যাঁরা ওই করোনা রোগীর সংস্পর্শে এসেছিলেন, তাঁদের শনাক্তকরণের কাজ করছে প্রশাসন। পরবর্তীতে তাঁদের সোয়াব পরীক্ষা করা হবে বলে জানতে পেরেছি। ওই বাজার সমিতির সভাপতি অসীম ঘোষ বলেন, এটি এলাকার ব্যস্ততম বাজার। এমন একটা পরিস্থিতি যে তৈরি হতে পারে, তা কল্পনা করতে পারিনি। আমরা চাই, যাঁরা ওই রোগীর সংস্পর্শে এসেছিলেন, তাঁদের চিহ্নিত করে শারীরিক পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হোক।

তবে শুধু এই বাজারই নয়, পুরাতন মালদা পুরসভার অন্তর্গত মঙ্গলবাড়ি সদরঘাট পুরবাজারও আগামী সোমবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সদরঘাট ব্যবসায়ী সমিতির পক্ষে সন্তোষ হালদার বলেন, এই সময়ে কোনওমতেই ঝুঁকি নেওয়া যাবে না। কারণ পুরাতন মালদায় করোনা সংক্রমণ শুরু হয়েছে। তাই আমরা বাজার বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।