ঝোঁক বাড়ছে অনলাইন শপিং-এ, নতুন কর্মসংস্থান তৈরি করছে ইকমার্স কোম্পানিগুলি

182

আলিপুরদুয়ার: অনলাইন শব্দটি বর্তমান সময়ে বড্ড প্রাসঙ্গিক। অনলাইন পড়াশোনা,অনলাইন আড্ডা,অনলাইন বিনোদনের মত অনলাইন বাজার করার প্রবণতা বেড়েছে বহুগুণ। যেটা অনলাইন শপিং বলেই পরিচিত। এমনিতেই এটা বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছিল। গত বছর লকডাউন থেকে এবারের কার্যত লকডাউনে অনলাইন কেনাকাটা প্রাধান্য পেয়েছে অনেকটাই। শহর ছাড়িয়ে প্রত্যন্ত গ্রামে এই পরিষেবা পৌঁছে যাচ্ছে।

শুধু আলিপুরদুয়ার নয়, গোটা রাজ্যব্যাপী একই ছবি উঠে আসে। কোম্পানি পলিসি থাকার জন্য অনলাইন ইকমার্স  কোম্পানি থেকে কোনো অফিসিয়াল বক্তব্য না পাওয়া গেলেও,ব্যাবসা যে অনেকটা বাড়ছে কার্যত এটার ইঙ্গিত স্পষ্ট করেন এই কোম্পানি গুলো। কোম্পানির এক কর্তার কথা অনুযায়ী, লকডাউনে সাধারণ মানুষ আরও বেশি নির্ভর হয়ে পড়েছে অনলাইন শপিংয়ের উপর। বাড়িতে থেকেই বাজার করতে পছন্দ করছে অনেকে। এতে কোম্পানির যেমন ব্যাবসা বাড়ছে, তেমনই অর্ডার অনুযায়ী সঠিক সময় জিনিস পৌঁছে দেবার জন্য আরো বেশি ডেলিভারি বয় নিয়োগ করা হচ্ছে। এতে কিছু কর্মসংস্থানও তৈরি হচ্ছে। আলিপুরদুয়ারে পাঁচটি বড় সংস্থা রয়েছে যারা জেলার ১১ টি পিনকোড এলাকায় অর্ডার অনুযায়ী পৌঁছে যায়। সুব্রত পাল নামে এক ডেলিভারি বয়ের কথায়,সঠিক সময় জিনিস পৌঁছে দেওয়া আমাদের কাজ। আর কাজের দক্ষতার উপর কোম্পানিও নজর রাখে।

- Advertisement -