উত্তরবঙ্গের ২৫ হাজার ক্ষুদ্র চা চাষিকে প্রশিক্ষণ দেবে ট্রিনিটি প্রজেক্ট

52

হেলাপাকড়ি: উত্তরবঙ্গের পঁচিশ হাজার ক্ষুদ্র চা চাষিকে ট্রিনিটি প্রজেক্টের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। সেই লক্ষ্যে উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন এলাকায় ক্ষুদ্র চা চাষিদের নিয়ে কর্মশালা করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার পদমতি-২ অঞ্চলের হেলাপাকড়িতে সেই কর্মশালা করা হয়। এদিন ঘুমটি পাড়ায় আয়োজিত কর্মশালায় জয় জল্পেশ ক্ষুদ্র চা চাষি স্বনির্ভর গোষ্ঠীর একশো জন ক্ষুদ্র চা চাষি অংশগ্রহণ করেন। ট্রিনিটি প্রজেক্টের উত্তরবঙ্গের প্রোগ্রাম ম্যানেজার রহিন ডিসুজা, সহকারী প্রোগ্রাম ম্যানেজার শচীন প্রধান, চা বিশেষজ্ঞ প্রদীপ দত্ত শীতকালে চা বাগানের পরিচর্যার বিষয়ে আলোচনার মাধ্যমে চা চাষিদের প্রশিক্ষণ দেন।

ট্রিনিটির প্রজেক্টের উত্তরবঙ্গের প্রোগ্রাম ম্যানেজার রহিন ডিসুজা বলেন, ‘ট্রিনিটি প্রজেক্টের প্রধান উদ্দেশ্য হল উন্নত মানের চা উৎপাদন করা। তাই শীতকালে চা বাগানের পরিচর্যা সম্পর্কে ক্ষুদ্র চা চাষিদের অবগত করতে বিভিন্ন এলাকায় এই কর্মশালা করা হচ্ছে। কর্মশালার মাধ্যমে চাষিদের মৌখিক ধারণা দেওয়ার পর তাঁদের হাতে-কলমে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। উন্নত মানের চা উৎপাদন করে চাষিরা যাতে আর্থিকভাবে লাভবান হন। সেই উদ্দেশ্য নিয়েই ২০১৯ সাল থেকে ট্রিনিটি প্রজেক্টের কাজ শুরু হয়েছে। দেশের বিভিন্ন রাজ্যে ক্ষুদ্র চা চাষিদের প্রশিক্ষিত করার কাজ চলছে।’

- Advertisement -

তিনি আরও বলেন, ‘আগামী ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত অ্যাপ্সের মাধ্যমে উত্তরবঙ্গের দশহাজার ক্ষুদ্র চাষির কাছে পৌঁছনোর লক্ষ্য রয়েছে। ইতিমধ্যে কর্মশালার মাধ্যমে আড়াই হাজার ক্ষুদ্র চা চাষির কাছে পৌঁছনো সম্ভব হয়েছে। ময়নাগুড়ির জয় জল্পেশ ক্ষুদ্র চা চাষি স্বনির্ভর গোষ্ঠীর নিজস্ব কারখানা ভাল চা তৈরিতে সফলতা পেয়েছে। তাই এই গোষ্ঠীর তৈরি চা যাতে আন্তর্জাতিক বাজারে স্থান পায় সেই প্রচেষ্টাও করা হচ্ছে।’

কর্মশালার মাধ্যমে চা বাগান পরিচর্যা সম্পর্কিত পরামর্শ পেয়ে খুশি উপস্থিত ক্ষুদ্র চা চাষিরা। এর মাধ্যমে চা চাষিরা দারুন ভাবে উপকৃত হবেন বলে জানান জয় জল্পেশ ক্ষুদ্র চা চাষি স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সভাপতি রজতকুমার রায়কার্জ্জী।