স্বামীর মাথায় ধারালো অস্ত্রের কোপ মেরে পালিয়ে গেল স্ত্রী

211

রায়গঞ্জ: দাদা, ভাইকে সঙ্গে নিয়ে শ্বশুর বাড়িতে এসে আচমকা স্বামীর মাথায় ধারালো অস্ত্র চালিয়ে চম্পট দিল স্ত্রী। রবিবার বিকেলে রায়গঞ্জ থানার কর্ণজোড়া ফাঁড়ির অন্তর্গত কমলাবাড়ী গ্রাম পঞ্চায়েতের কসবা মহেশো গ্রামের ঘটনায়। অস্ত্রের আঘাতে আহত স্বামীর নাম রফিকুল ইসলাম। তিনি স্থানীয় এক বিএড কলেজের চতুর্থ শ্রেণীর কর্মী। এই ঘটনায় হতচকিত হয়ে শ্বশুরবাড়ির লোকজন সহ পড়শিরা।

এদিকে আহত রফিকুল ইসলামকে তড়িঘড়ি রক্তাক্ত অবস্থায় রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরিবার সূত্রে খবর, রফিকুল ইসলামের সঙ্গে বছর তিনেক আগে হেমতাবাদ ব্লকের সমাসপুর এলাকার বাসিন্দা সফুরা বেগমের সঙ্গে বিয়ে হয়। শনিবার ইদের দিন বাপের বাড়ি যাওয়ার বায়না করে স্ত্রী সফুরা বেগম। কিন্তু স্বামী যাওয়া হবে না জানায়। বরং রবিবার যাওয়া হবে বলে জানায়। এই নিয়ে শনিবার স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বচসা থেকে হাতাহাতি হয়। পরে শনিবার সন্ধ্যায় সমাসপুরে বাবার বাড়িতে চলে যায় সফুরা বেগম। এরপর রবিবার বিকেলে ওই গৃহবধূ তার দাদা ও ভাইকে সঙ্গে নিয়ে এসে আচমকাই স্বামীর ওপর হামলা চালায়। স্বামীকে মাথায় ধারালো অস্ত্রের কোপ চালিয়ে সেখান থেকে চম্পট দেয়।

- Advertisement -

ঘটনায় আহতের পরিবারের তরফে স্ত্রী সহ তিনজনের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন কর্ণজোড়া ফাঁড়িতে। এদিকে ঘটনার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে ছুটে যান পুলিশ। ইতিমধ্যেই এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

কর্ণজোড়া ফাঁড়ির ওসি চন্দন সিং এই ব্যাপারে মন্তব্য করতে নারাজ। কমলাবাড়ী গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান যমুনা বর্মণ বলেন, “একটা ঘটনা ঘটেছে। জখম রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনাস্থলে পুলিশ এসেছিল। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করছে।”