আর্থিক সঙ্কটের মধ্যেও অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ালেন মৃত রাজকুমার রায়ের স্ত্রী

291

দীপঙ্কর মিত্র, রায়গঞ্জ: দু’বছর আগে আজকের দিনেই রহস্যজনকভাবে মারা যান শিক্ষক রাজকুমার রায়। সেদিন ইটাহারের শ্রীপুর এলাকায় পঞ্চায়েত নির্বাচনের দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে যান তিনি। পরদিন রায়গঞ্জের সোনাডাঙ্গি এলাকায় তাঁর ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন দেহ মেলে। কিভাবে তাঁর মৃত্যু হয়েছে এখনও তা তদন্তের বিষয়। শিক্ষক রাজকুমার রায়ের মৃত্যুর রহস্য উন্মোচনের জন্য সিবিআই এবং বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা চলছে।

শুক্রবার রাজকুমার রায় হত্যার বিচার চাই মঞ্চের উদ্যোগে রায়গঞ্জের ঘড়ি মোড়ে রবীন্দ্রমূর্তির পাদদেশে পালিত হল শিক্ষক রাজকুমার রায়ের মৃত্যুবার্ষিকী। প্রয়াত শিক্ষকের প্রতিকৃতিতে মাল্যদান করে শ্রদ্ধা জানান তাঁর স্ত্রী অর্পিতা রায় সহ মঞ্চের সদস্যরা। শিক্ষকের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে আজ রায়গঞ্জ ব্লকের বিভিন্ন অঞ্চলের দুঃস্থ মানুষের মধ্যে ত্রাণ বিলি করেন তারা। অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াতে অর্পিতা দেবী এদিন ১০ হাজার টাকার আর্থিক সাহায্য তুলে দেন মঞ্চের কর্মকর্তাদের হাতে। মঞ্চের আহ্বায়ক ভাস্কর ভট্টাচার্য জানান, নির্বাচন কমিশনের দেওয়া প্রতিশ্রুতি মতো ক্ষতিপূরণ পাননি অর্পিতাদেবী। কবে পাবেন কেউই জানেন না।

- Advertisement -

লকডাউনের জন্য সব কিছুই আটকে রয়েছে। নিজে চরম সমস্যার মধ্যে দিন কাটালেও অসহায় মানুষের কথা ভোলেন নি তিনি। আজ স্বেচ্ছায় সংগঠনের ত্রাণকার্যে অংশ নিতে ১০ হাজার টাকা তুলে দিয়েছেন। শিক্ষক প্রিয়রঞ্জন পাল, শিক্ষক অভিজিৎ কুন্ডু, শিক্ষক অনিরুদ্ধ সিনহা, প্রধান শিক্ষক শাহিদুর রহমান, শিক্ষিকা শর্মিষ্ঠা ঘোষ সহ আরও অনেকেই সামাজিক দূরত্ব মেনে প্রয়াত শিক্ষককে শ্রদ্ধা জানান এবং রাজকুমার রায়ের মৃত্যুর নিরপেক্ষ তদন্তের দাবিতে সোচ্চার হন। দুবছর হয়ে গেলেও আজও রাজকুমার রায়ের মৃত্যুর কিনারা হয়নি। খুন না আত্মহত্যা তা নিয়ে ধোঁয়াশা থেকে গেছে জেলাবাসীর মধ্যে। কবে প্রকৃত সত্য উঠে আসে সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।