বর্ধমান ২৫ জানুয়ারিঃ বর্ধমান কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারের বন্দিদের নিয়ে শুরু হল ‘উইন্টার কার্নিভাল’। শনিবার বর্ধমান সংশোধনাগারে হাজির হয়ে সেই কার্নিভালের উদ্বোধন করলেন রাজ্যের কারামন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস। মন্ত্রী ছাড়াও উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আইজি কারা অরুণ কুমার গুপ্তা, ডিআইজি কারা (বর্ধমান রেঞ্জ) অবনি কুমার সাহা, পূর্ব বর্ধমানের জেলা শাসক বিজয় ভারতি সহ অন্য বিশিষ্ঠ জনেরা। রবিবার পর্যন্ত এই কার্নিভাল  চলবে।
কারামন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস বলেন, ‘প্রেসিডেন্সি সংশোধনাগারে প্রথম এই কার্নিভালের আয়োজন করা হয়। সেই কার্নিভাল কলকাতার বাসিন্দা মহলে ব্যাপক সাড়া ফেলে। এর পরেই রাজ্যের অন্য কেন্দ্রীয় সংশধনাগারে  উইন্টার কার্নিভাল আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কলকাতার বাইরে এই প্রথমবার  বর্ধমান কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে সাজাপ্রাপ্ত বন্দিদের নিয়ে  উইন্টার কার্নিভালের আয়োজন করা হয়েছে।  এখানে উৎসব সফল হলে উত্তরবঙ্গের বালুরঘাট কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারে কার্নিভালের আয়োজন করা হবে বলে ঠিক করা হয়েছে। এরপর একেএকে  রাজ্যের অন্য জেলাগুলির কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার গুলিতেও এমন কার্নিভালের আয়োজন করা হবে’।
কারা দফতরের (বর্ধমান রেঞ্জ) ডিআইজি অবনি কুমার সাহা বলেন, ‘বন্দিদের  মূল শ্রোতে  ফেরাতেই এমন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। বর্ধমান সংশোধনাগারের ১১০ জন বন্দি সরাসরি এই কার্নিভালে অংশ নেবেন। তাঁরা তাঁদের উৎপাদিত দ্রব্য সামগ্রী বিক্রি করবেন। সংশোধনাগারের ভিতরে ও বাইরে হওয়া প্রদর্শনী  দেখার জন্য  সকলের প্রবেশ অবাধ করা হয়েছে’।
জানা গিয়েছে, সংশোধানাগারে বন্দিদের তত্ত্বাবধানে তৈরি নানা রকম খাবারের স্টল যেমন  থাকছে  তেমনি কারাগারের ভিতরে  জৈব পদ্ধতিতে তৈরি আনাজও প্রদর্শনীতে রেখে বিক্রি করা হবে।এছাড়াও বর্ধমান কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারের সাজাপ্রাপ্ত মহিলারাদের তৈরি পিঠে-পুলির স্টল থাকছে। শনি ও রবিবার  বিকেল তিনটে থেকে রাত আটটা পর্যন্ত প্রদর্শনী চলবে।