রায়গঞ্জ ২২ অক্টোবরঃ ঝাঁটা বাঁশ লাঠি হাতে বেআইনি মদের ঠেক ভাঙলেন গ্রামের মহিলারাই। মঙ্গলবার ঘটনাটি ঘটেছে রায়গঞ্জ থানার গৌরী গ্রামপঞ্চায়েতে। শুধু তাই নয় বিকেলে রায়গঞ্জ থানার পাশাপাশি কর্ণজোড়া আবগারি দপ্তরেও বিক্ষোভ দেখায় প্রমীলা বাহিনী।
গ্রামবাসীদের অভিযোগ, রায়গঞ্জ থানার গৌরী গ্রামপঞ্চায়েতের হাতিয়া গ্রাম সহ একাধিক গ্রামজুড়ে চলছিল মদের ঠেক। এইজন্য গ্রামের বহিরাগত দুষ্কৃতীদের আনাগোনা বেড়েই চলছিল। শুধু মদই নয় ব্রাউন সুগার ও গাঁজার নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ছেন পুরুষেরাও। এর জেরে সংসারে অশান্তি সৃষ্টি হচ্ছে। পুলিশ ও পঞ্চায়েতকে জানিয়েও কোন সুরাহা হয়নি। তাই এবার বেশ কয়েকটি অবৈধ মদের ঠেক ভেঙে গুড়িয়ে দিলেন গ্রামের মহিলারা। এদিন দুপুরে মহিলারা কার্যত মিছিল করে এই অভিযান চালান। পুরুষ গ্রামবাসীরাও তাদের অভিযানের সামিল ছিলেন। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। এরপর মহিলারা রায়গঞ্জ থানায় বিক্ষোভ দেখানোর পাশাপাশি কর্ণজোড়ার আবগারি দপ্তরেও বিক্ষোভ দেখান। আবগারি দপ্তর আধিকারিককে স্মারকলিপিও দেন তারা। গৌরী গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান সিমা মন্ডল বলেন, ‘পুলিশকে জানানো হয়েছে। বেআইনি মদের ঠেক যাতে সংশ্লিষ্ট গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় না থাকে সে ব্যাপারে পঞ্চায়েতের তরফ থেকে পুলিশকে সবরকম সাহায্য করা হবে শীঘ্রই সচেতনতামূলক প্রচার চালানো হবে পঞ্চায়েতের তরফ থেকে’। বিষয়টি নিয়ে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ অবশ্য নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। পুলিশের দাবি, নিয়মিত বেআইনি মদের ঠেক গুলিতে অভিযান চালানো হয়।