অনাথ শিশুদের পাশে দাঁড়াল মহিলা সংগঠন

158

গাজোল: একটি মহিলা সংগঠনের তরফে প্রদর্শনী করে অর্থ উপার্জন করে সেই অর্থ দিয়ে অনাথ আশ্রমের শিশুদের সাহায্য করল নারীদের রূপকথার গল্প সংগঠনের মহিলা সদস্যরা। গাজোলে অনাথ আশ্রমের শিশুদের পাশে দাঁড়াল সংগঠনের মহিলারা। বসন্ত উৎসবকে সামনে রেখে একটা দিন শিশুদের সঙ্গে নানাভাবে কাটালেন তাঁরা। পাশাপাশি, শিশুদের জন্য চাল, ডাল, আলু, তেল, সবজি, বিস্কুট জুস, চকলেট, কেক সহ শুকনো খাওয়ার দেওয়া হয়। তাদের পড়াশোনার জন্য খাতা কলম তুলে দেন সংগঠনের মহিলা সদস্যরা। উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের অ্যাডমিন কাবেরি সরকার, মডারেটর দীপা ঘোষ, সদস্যা শিল্পা সাহা, কৃষ্ণা চক্রবর্তী, মন্দিরা সরকার, সুতপা পাল প্রমূখ‌।

কাবেরি সরকার জানান, বিগত কয়েকদিন আগে সংগঠনের তরফে প্রদর্শনী করা হয়েছিল একটি বেসরকারি লজে। সেখানে যেসকল মহিলারা নিজে হাতে তৈরি জিনিস বিক্রি করেছিল তা থেকে লভ্যাংশ হয় যে টাকায়। সেই টাকা থেকে বেশ কিছু টাকা খরচ করে গাজোলের নয়াপাড়া এলাকায় তুত ফ্যাক্টরির পেছনে একটি অনাথ শিশুদের আশ্রমে গিয়ে বেশকিছু সামগ্রিক আমরা তাদের হাতে তুলে দেই। অনাথ আশ্রমে ৮টি শিশু রয়েছে। মঙ্গলবার সেই আশ্রমে গিয়ে শিশুদের সঙ্গে আমরা বেশ কিছু সময় কাটালাম। তাদের হাতে পড়াশোনার সামগ্রী এছাড়াও খাদ্য সামগ্রী তুলে দিলাম। এই অনাথ আশ্রমে অল্প অল্প করে যদি সবাই পাশে দাঁড়াতে পারে তাহলে হয়ত অনাথ আশ্রমের শিশুদের অনেকটা উপকার হবে। আমাদের নারীদের রূপকথার গল্প ফেসবুকের একটি সংগঠন বিগত লকডাউন থেকেই সংগঠনটি তৈরি করা হয়েছিল। আগামী দিনে আমরা সমাজসেবামূলক কাজ করে যাব সংগঠনের তরফে।

- Advertisement -

আশ্রমের দায়িত্বে থাকা পিন্টু সিংহ জানান, আশ্রমে অনেক অভাব রয়েছে। প্রয়োজন রয়েছে অনেক কিছু। কোনওরকমে সকলের সাহায্যে এগিয়ে নিয়ে চলেছি এই অনাথ আশ্রমটিকে। আজ এনআরকে মহিলা সংগঠনের তরফে চালডাল সহ শুকনো খাওয়ার ও পড়াশোনার সামগ্রী দিলেন অনাথ শিশুদের। আগামী দিনে যদি অনেকেই এগিয়ে আসেন তাহলে আশ্রমটি হয়ত আরও বড় আকারের করতে পারব।