সোনার দোকানে চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য

749

বর্ধমান: খরিদ্দার সেজে সোনার দোকানে ঢুকে গয়না চুরি করে পালাল দুষ্কৃতীরা। সোমবার ঘটনাটি ঘটে বর্ধমানের জনবহুল পার্কাসরোড সংলগ্ন এলাকায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় বর্ধমান থানার পুলিশ। ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়।

দোকান মালিকের মেয়ে দীপান্বিতা দত্ত জানিয়েছেন, এদিন তিনি দোকানে ছিলেন। দুপুর দুই যুবক দোকানে এসে হাজির হয়। দুই যুবক একে অপরের সঙ্গে হিন্দি ভাষায় কথাবার্তা বলছিল। প্রথমে তারা সোনার লকেট দেখানোর কথা বলে। পরে অন্য নানা গয়না দেখানোর কথা বলতে থাকে। এরই মধ্যে একটার পর একটা গয়না হাতিয়ে নেয় তারা। জানা গিয়েছে, খোয়া যাওয়া গয়নার মধ্যে দশটি সোনার হার, কয়েকটি আংটি, মঙ্গলসূত্র সহ বেশকিছু গয়না রয়েছে। চুরি যাওয়া গয়নার বেশ কয়েকটি অর্ডারের গয়না ছিল। তিনি আরও জানান, যুবকদের অসৎ উদ্দেশ্য টের পাওয়ার পরই তিনি চিৎকার শুরু করেন। তাদের বাধা দেওয়ারও চেষ্টা করেন তিনি। কিন্তু দুষ্কৃতীরা রীতিমতো ফিল্মি কায়াদায় সোনার গয়না নিয়ে দোকান থেকে বেরিয়ে বাইকে চেপে চম্পট দেয়।

- Advertisement -

সোনার দোকানে চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

বর্ধমানের ব্যবসায়ী সুরক্ষা সমিতির সম্পাদক বিশ্বেশ্বর চৌধুরী জানান, দীপান্বিতা দত্তর মুখ থেকে সবকিছু শুনে তিনি বর্ধমান থানায় খবর দেন। বর্ধমান থানার আইসি পিন্টু সাহার নেতৃত্ব পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। তবে ওই গয়নার দোকানে সিসি ক্যামেরা না থাকায় দুষ্কৃতীদের এখনও চিহ্নিত করা যায়নি। দুষ্কৃতীদের খোঁজে অন্য সব সিসি ক্যামেরার ফুটেজ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

কয়েকমাস আগেই বর্ধমান শহরের বিসি রোডে একটি স্বর্ণ-ঋণদানকারী সংস্থায় ৩০ কেজির বেশি সোনার গয়না লুঠ করে নিয়ে পালায় সশস্ত্র দুষ্কৃতীর দল। বাইকে চেপে পালানোর সময়ে ওই দুষ্কৃতীরা গুলি চালিয়ে একজনকে জখম করে। সিআইডি তদন্ত চালালেও এখনও ওই ঘটনায় জড়িত মূল দুষ্কৃতী ও লুঠ হওয়া সোনা উদ্ধার হয়নি। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই এদিন ফের সোনার দোকানে চুরির ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে বর্ধমানের স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের মধ্যে।