দিনদুপুরে বাড়ি থেকে টাকা-গয়না চুরি, চাঞ্চল্য ওদলাবাড়িতে

268

ওদলাবাড়ি: দিনদুপুরে একটি বাড়িতে চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ওদলাবাড়ির দক্ষিণ বিধানপল্লীতে। বাড়ির মালিক হারাধন সাহার অভিযোগ, বন্ধ বাড়ির দরজার তালা ভেঙে প্রায় চার ভরি সোনার গয়না ও নগদ ৬০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে দুষ্কৃতী। ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে মাল থানার পুলিশ।

সোমবার সকাল সাড়ে ৮টা থেকে ১১টার মধ্যেই এই চুরির ঘটনা ঘটেছে বলে দাবি হারাধনবাবুর। তিনি জানিয়েছেন, এক আত্মীয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগদানের জন্য তাঁর স্ত্রী, পুত্র ও কন্যা গত তিনদিন ধরে অসমের বঙ্গাইগাঁও শহরে রয়েছেন। ব্যবসার কাজে এদিন সকাল ৮টায় বেরিয়ে ১১টা নাগাদ যে তিনি বাড়ি ফিরে আসবেন সেই কথা গতকালই বাড়ির পরিচারিকাকে জানিয়ে তাকেও ১১টার পর বাড়ির কাজের জন্য আসতে বলেছিলেন। সেইমতো বাড়ির মূল দরজায় তালা মেরে বেরিয়ে যান হারাধনবাবু। কিন্তু ১১টা নাগাদ বাড়ি ফিরে এসেই দরজার তালা ভাঙা দেখে চমকে ওঠেন তিনি। দেখেন, ঘরের ভেতরে আলমারি খুলে, লকারে রাখা গয়নার বাক্সগুলো সব খালি অবস্থায় বিছানায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে। উধাও আলমারিতে রাখা নগদ ৬০ হাজার টাকা। সব দেখে মাথায় হাত তাঁর। এরই মাঝে বাড়ির পরিচারিকা এসে পৌঁছোলে বাড়িতে কে এসেছিল তা জানতে চান হারাধনবাবু।

- Advertisement -

এদিকে, ঘরে ঢোকার পর হারাধনবাবুর চিৎকারে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। সবকিছু দেখে তাঁরাও স্তম্ভিত। এলাকার নির্বাচিত গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য নিতাই বর্মন বলেন, ‘যেভাবে দিনের বেলায় হারাধনবাবুর বাড়ির তালা ভেঙে চুরির ঘটনা ঘটেছে তা যথেষ্ঠ উদ্বেগজনক। ঘটনায় এলাকার বাসিন্দাদের মনে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।’ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রতিবেশী জানিয়েছেন, উঁচু প্রাচীর ঘেরা হারাধন সাহার বাড়ির ভেতরে কি ঘটছে তা ঘুনাক্ষরেও টের পাননি তাঁরা। দুষ্কৃতী যে প্রাচীর টপকেই বাড়ির ভেতরে ঢুকেছিল তার প্রমাণ অবশ্য চুরির ঘটনার পর পাওয়া গিয়েছে। চাঞ্চল্যকর এই চুরির ঘটনায় জড়িত দুস্কৃতীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন হারাধন সাহা এবং নিতাই বর্মন দুজনেই।

এদিকে, চুরির খবর পেয়ে এদিন দুপুরে মাল থানা থেকে পুলিশের একটি দল হারাধন সাহার বাড়িতে গিয়ে তদন্ত শুরু করেছে। পুলিশ জানিয়েছে, দুষ্কৃতিকারী একজন না একাধিক তা তদন্ত সাপেক্ষ। তদন্তে বেশ কিছু নাম সন্দেহের তালিকায় রয়েছে। তদন্তে সমস্ত দিক খতিয়ে দেখা হবে।