ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতির আশঙ্কা, জমির ধান কেটে নিচ্ছেন চাষিরা

89

ময়নাগুড়ি: আমপানের মতো ক্ষতির মুখে পড়তে নারাজ চাষিরা। তাই আবহাওয়ার পূর্বাভাসে ঘূর্ণিঝড়ের সম্ভাবনা দেখা দেওয়ায় জমির ধান কেটে নিতে শুরু করেছেন তাঁরা। জানা গেছে, আগামী ৭২ ঘন্টার মধ্যে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব পড়তে পারে ডুয়ার্স এলাকাতে। এমনটা জানার পর থেকেই বোরো ধান কাটার কাজ শুরু হয়েছে বিভিন্ন জায়গায়। চাষিদের কথায় পুরোপুরি ভাবে বোরো ধান এখনও পরিণত অবস্থায় আসেনি। ৭৫ থেকে ৮০ শতাংশ ধান পরিনত হয়েছে, তবুও তারা ধান ঘরে তুলবার কাজ শুরু করেছেন। কারণ গতবছরে আমপান ঝড়ে বিধ্বস্ত হয়েছিলো কৃষি বলয়। তাই চলতি বছরে আবহাওয়া দপ্তরের নির্দেশিকা আসা মাত্রই শুরু হয়েছে জোরকদমে প্রস্তুতি।

জলপাইগুড়ি জেলা কৃষি বিজ্ঞান কেন্দ্রের বিষয়বস্তু কৃষি আবহাওয়াবিদ অমিত রায় জানান, তারা চাষিদের পরামর্শ দিচ্ছেন পরিণত অবস্থায় ধান চলে আসার মূহুর্তে তা কেটে ফেলতে। এতে ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে ফসল বাঁচাতে পারবে চাষিরা। তবে খুব আতঙ্কিত না হওয়ার জন্য চাষিদের পরামর্শ দিয়েছেন অমিত বাবু। ময়নাগুড়ি ব্লক কৃষি অধিকর্তা কৃষ্ণা রায় জানান, একটা ঝড়ের প্রকোপ দেখা দেওয়ার আশঙ্কা রয়েছে, মোটামুটিভাবে বোরোধান চাষ এখন শেষের দিকে তাই মাঠে তা ফেলে না রেখে ঘরে তোলার জন্য চাষীদের বলা হয়েছে।

- Advertisement -