উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি অনুপম সেন কলোনিতে

83

জলপাইগুড়ি: ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে গড়ে উঠেছে অনুপম সেন কলোনি। অনুপমবাবুর প্রয়াণের পর ওই কলোনীর ৫৬টি পরিবার বর্তমানে অসহায় অবস্থায় দিন গুজরান করছে। এলাকার অধিকাংশ মানুষ কৃষিজীবী। কিন্তু কৃষিজ পণ্য বিপণনের ব্যবস্থা কোনও নেই। রাস্তারও বেহাল অবস্থা। সর্বত্র বিদ্যুৎ পরিষেবা পৌঁছোয়নি। চিকিৎসা পরিষেবার অবস্থা তথৈবচ। নেই কোনও স্বাস্থ্যকেন্দ্র। যার ফলে ক্ষোভ জমছে এলাকায়। বাসিন্দাদের একাংশের অভিযোগ, ভোট আসে ভোট যায় কিন্তু অনুপম সেন কলোনীর অবস্থার কোনও পরিবর্তন হয় না।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, ১৯৬৮ সালের বিধ্বংসী বন্যার পর বোয়ালমারি চরের বাসিন্দারা বিপন্ন হয়ে পড়েছিলেন। ১৯৭১ সালে ডাঃ অনুপম সেন জলপাইগুড়ির বিধায়ক হওয়ার পর এলাকার ৫৬টি পরিবারের পাশে দাঁড়ান। অনুপম সেনের নামেই সেখানে গড়ে ওঠে কলোনী। অনুপমবাবু প্রায়ই সেখানে এসে রোগীদের চিকিৎসা করতেন।

- Advertisement -

বীণা মণ্ডল নামে ৯০ ছুঁইছুঁই এক বৃদ্ধা কথা প্রসঙ্গে জানালেন, ডাঃ অনুপম সেন ওঁনার সন্তানসম। তাঁর প্রয়াণের পর অনুপম কলোনীর দিকে কেউ ফিরেও তাকান না। কার্তিক সরকার নামে আরেক বাসিন্দা জানান, আজ তাঁরা বড়ই অসহায়। ওই রকম জনপ্রতিনিধি আর পাওয়া যাবে না।