পুলিশের নজর এড়িয়ে রমরমিয়ে চলছিল এই বড় অপরাধ, গোপন সূত্রের খবরে পর্দা ফাঁস

263

জঙ্গিপুর: ভুয়ো ভ্যাকসিন কাণ্ডের পর খোঁজ মিললো ভুয়ো আধার কার্ড তৈরির চক্রের। গোপন সূত্রে জাল আধার কার্ড তৈরি করবার অভিযোগে পেয়ে সোমবার রাতে অভিযান চালিয়ে সাগরদিঘী থানার নিচুপাড়া এলাকা থেকে পুলিশ তিন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে। জাল আধার কার্ড তৈরিতে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের নাম অতুল চৌধুরী (৩৬), বিজয় রায় (২৯) এবং আমজাদ সেখ (২৪)। গত প্রায় দেড় মাস ধরে সাগরদিঘীর জনৈক মুজিবর শেখের বাড়িতে তারা গোপনে জাল আধার কার্ড তৈরি করছিলেন বলে অভিযোগ। ধৃতদের বিরুদ্ধে পুলিশ ভারতীয় দন্ডবিধীর ৪১৯,৪২০,৪৬৫,৪৬৮,৩৪ সহ একাধিক ধারায় মামলা রুজু করেছে। ধৃতদের মঙ্গলবার জঙ্গিপুর কোর্টে পেশ করা হয়েছে।

জঙ্গিপুর পুলিশ জেলার সুপার ওয়াই রঘুবংশি মঙ্গলবার জানান, গতকাল সাগরদিঘী থানার পুলিশ গোপন সূত্রে খবর পায় সাগরদিঘী-নিচুপাড়া এলাকার একটি বাড়িতে ভুয়ো আধার কার্ড তৈরির কাজ হচ্ছে। সেই খবরের ভিত্তিতে পুলিশের একটি বিশেষ দল ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে অতুল চৌধুরী সহ আরও দুজনকে গ্রেপ্তার করে। ধৃতদের কাছ থেকে জাল আধার কার্ড তৈরি করবার একাধিক জিনিস, মোবাইল ফোন ,নগদ টাকা উদ্ধার হয়েছে।

- Advertisement -

পুলিশ সূত্রের খবর, কোভিড অতিমারীর জন্য এই মুহূর্তে সরকারি আধার কেন্দ্রগুলি থেকে আধার কার্ড তৈরি করবার কাজ কিছুটা বিলম্বিত হচ্ছে। সেই সুযোগ নিয়ে মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জ থানা এলাকার বাসিন্দা অতুল চৌধুরী ভুয়ো আধার কার্ড তৈরির ব্যবসা ফেঁদে বসেন। দু’বছর আগে অতুল চৌধুরী একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে চুক্তিভিত্তিক কাজ করতেন। সেই সূত্রে তার কান্দি এলাকার এক ব্যক্তির সাথে পরিচয় হয়। কান্দি এলাকার ওই ব্যক্তি বহুদিন ধরে মহারাষ্ট্র, গুজরাট সহ অন্যান্য কয়েকটি রাজ্যের কয়েকজন ‘অথরাইজড আধার কার্ড’ তৈরির ব্যক্তিদের আইডি এবং পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে জাল আধার কার্ড তৈরি করছেন।

পুলিশ সুপার বলেন, ‘যেহেতু অতুল চৌধুরী এই চক্রের মূল পান্ডা তাই আমরা কেবলমাত্র তারই পুলিশি হেপাজতের আবেদন জানিয়েছি। বিজয় এবং আমজাদ শেখ তার হয়ে কেবলমাত্র কাস্টমার ধরবার কাজ করতো।‘