কন্যাশ্রী প্রকল্পে এগিয়ে উত্তরের এই জেলা

152

রায়গঞ্জ: করোনা আবহে প্রায় ১৭ মাস ধরে দরজা বন্ধ স্কুলের। এই পরিস্থিতিতে কন্যাশ্রীর কাজ যাতে বন্ধ না থাকে সেসব বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতি জেলায় নির্দেশ দিয়েছিলেন। আর তাতেই এল সাফল্য। প্রশাসন সূত্রে খবর, গোটা রাজ্যে উত্তর দিনাজপুরই এখনও শীর্ষ স্থানে। জেলা প্রশাসনের দাবি, গত এক মাস ধরে স্পেশ্যাল ড্রাইভ চলছে। খুব অল্প সময়ে লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছোনো গিয়েছে। প্রকল্পের টাকা ছাত্রীদের অ্যাকাউন্টে দেওয়া শুরু হয়েছে। অনেক দুঃস্থ ছাত্রী এই অতিমারিতে কাজে লাগাতে পেরেছে।

জেলার কন্যাশ্রী প্রকল্পের নোডাল অফিসার অনির্বাণ রায় বলেন, ‘শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এবং প্রশাসনিক দপ্তরের কর্মীদের প্রচেষ্টায় এটা সম্ভব হয়েছে।’ প্রশাসন সূত্রে খবর, কন্যাশ্রী প্রকল্পে সাধারণভাবে ছাত্রীদের দু’টি বিভাগে টাকা দেওয়া হয়। তেরো থেকে আঠারো বছরের মেয়েদেরকে ওয়ান প্রকল্পের আওতায় সুবিধা দেওয়া হয়। আর একটি বিভাগ কেটু। উত্তর দিনাজপুরে লক্ষ্য মাত্রা ৮৯ হাজার ৫৬৫ ছিল। এখনও পর্যন্ত আবেদন জমা হয়েছে ৬৫ হাজার ৭৯০। গোটা রাজ্যে লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২৪ লক্ষ ৪৪ হাজার ৮, জমা হয়েছে ১২ লক্ষ। পাশাপাশি কেটুতে উত্তর দিনাজপুরে ২৫ হাজার ১৪৬ জনের লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে এখনও পর্যন্ত জমা হয়েছে ৪ হাজার ৯৯৩ আবেদন। প্রশাসনের কর্তাদের দাবি, চলতি মাসের মধ্যেই লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছোনো সম্ভব হবে।

- Advertisement -