রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্বয়ংক্রিয় লন্ড্রি চালুর ভাবনা

106

রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্বয়ংক্রিয় লন্ড্রি চালুর ভাবনা চিন্তা শুরু করেছে স্বাস্থ্য দপ্তর। বাস্তবায়িত হলে তা উত্তরবঙ্গে প্রথম হবে। শুধু রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নয়, মহকুমা হাসপাতালগুলিকেও এর সঙ্গে যুক্ত করার চিন্তাভাবনা রয়েছে। ইতিমধ্যেই এই কাজ করতে পারে এমন সংস্থার খোঁজ শুরু হয়েছে। সবকিছু ঠিক থাকলে আর কয়েক মাসের মধ্যেই নতুন পরিষেবা চালু হতে পারে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

বর্তমানে রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সব বেডশিট, বালিশের কভার, কম্বল, মশারি ধোপাকে দিয়ে ধোয়ানো হয়। স্বাস্থ্য দপ্তরের একটি সূত্রের মতে, দরপত্র ডেকে দায়িত্ব দিয়ে দেওয়া হয়। তবে, ধোপা কোথায় পরিষ্কার করছে, কিভাবে করছে, কতটা ডিটারজেন্ট ব্যবহার করছে, কোন জলে ধোয়া হচ্ছে, সেদিকে কার্যত কোনো নজরই থাকে না। এ নিয়ে নানা সময় বিভিন্ন মহল থেকে এবং রোগী ও তাদের পরিবারের তরফে অভিযোগও এসেছে। ফলে সবসময় সংক্রমণের একটা আশঙ্কা থেকেই যায়। এসব চিন্তা দূর করতেই স্বয়ংক্রিয় লন্ড্রি চালু করার বিষয় ভাবনা চিন্তা চলছে। এই লন্ড্রি চালু হয়ে গেলে সবকিছু স্বাস্থ্যসম্মতভাবে হবে। ফলে সংক্রমণের আশঙ্কাও কমবে। কলকাতার বড় হাসপাতালগুলিতে এই সম্পূর্ণ স্বয়ংক্রিয় লন্ড্রি রয়েছে। রায়গঞ্জের মতো মেডিকেল কলেজ হাসপাতালগুলিতে এই পরিষেবা চালুর উদ্যোগ অভিনব বলে মনে করছে জেলার চিকিৎসা মহল।

- Advertisement -

জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক কার্তিকচন্দ্র মণ্ডল জানান, ‘বিষয়টি ভাবনাচিন্তার স্তরে রয়েছে। স্বয়ংক্রিয় লন্ড্রি সংস্থার খোঁজ চলছে।‘

তার কথায়, এমন কোনও সংস্থার খোঁজ পেলে আলোচনার পর কলকাতায় স্বাস্থ্য দপ্তরে প্রস্তাব পাঠানো হবে। সেই প্রস্তাব কলকাতা থেকে অনুমোদন মিলতেই পরিষেবা চালুর বিষয়ে যাবতীয় উদ্যোগ নেওয়া হবে।