পরকীয়ায় ফাঁসানোর হুমকি, লজ্জায় আত্মঘাতী গৃহবধূ!

178

গাজোল: জোর করে পরকীয়ায় লিপ্ত করানোর চেষ্টা। আপত্তি জানানোয় ভয় দেখিয়ে ফাঁসানোর হুমকি। লোকলজ্জার ভয়ে আত্মঘাতী হলেন এক গৃহবধূ। এমনই দাবি মৃতার পরিবারের। শনিবার সকালে ঘটনাটি ঘটে গাজোলের ময়না এলাকায়। ঘটনায় মৃতার স্বামীর এক বন্ধুর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে গাজোল থানায়। লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত নেমেছে গাজোল থানার পুলিশ।

জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত যুবকের নাম সঞ্জয় মণ্ডল। পেশায় শিক্ষক। মৃত ওই গৃহবধূর নাম শান্তনা রায়(৩০)। তাঁর স্বামীর নাম দেবাশীষ রায়, পেশায় ব্যবসায়ী। ১২ বছর আগে ময়না এলাকার বাসিন্দা দেবাশীষ রায়ের সঙ্গে শান্তনা রায়ের বিয়ে হয়েছিল। মৃতার ১০ বছরের একটি মেয়ে রয়েছে। অভিযোগ, মৃতার স্বামীর এক বন্ধু দীর্ঘদিন ধরেই তাঁকে পরকীয়ায় ফাঁসানোর চেষ্টা করছিল। সেই কারণেই তিনি আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিক অনুমান।

- Advertisement -

মৃতার পরিবার সূত্রে খবর, এদিন সকাল ৮টা নাগাদ শোওয়ার ঘরে ঝুলন্ত অবস্থায় ওই গৃহবধূর মৃতদেহ দেখতে পান পরিবারের লোকজন। তড়িঘড়ি তাঁকে উদ্ধার করে স্থানীয় চিকিৎসককে খবর দেওয়া হলে চিকিৎসক পৌঁছে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। অন্যদিকে, গাজোল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মালদা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠায়। ঘটনার প্রেক্ষিতে মৃত ওই গৃহবধূর বাবা অনিল চন্দ্র রায় গাজোল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

মৃত গৃহবধূর বাবা জানিয়েছেন, গ্রামেরই এক যুবক দীর্ঘদিন ধরে তাঁর মেয়েকে বিভিন্ন রকমভাবে ফাঁসানোর হুমকি দিত। লোকলজ্জার ভয়ে তাঁর মেয়ে এদিন সকালেই আত্মঘাতী হয়। ওই যুবকের নামে গাজোল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।