ভোটবাড়ি সীমান্তের কিষাণ মান্ডিতে চুরির ঘটনায় গ্রেপ্তার তিন

511

মেখলিগঞ্জ: মেখলিগঞ্জ ব্লকের ভোটবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের কিষাণমান্ডি এলাকায় চুরির ঘটনা ঘটল। বুধবার সন্ধ্যায় চুরির ঘটনার তদন্তে নেমে তিনঘন্টার মধ্যেই সাফল্য পেল মেখলিগঞ্জ থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, চুরির ঘটনার ঘন্টা তিনেকের মধ্যেই এই ঘটনায় জড়িত থাকা তিনজনকে গ্রেপ্তার করার পাশাপাশি চুরি যাওয়া কম্পিউটারও উদ্ধার করেছেন তাঁরা। তাদের কাছ থেকে চুরি যাওয়া বেশকিছু নথিও উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার হওয়া তিনজন ভোটবাড়ি এলাকারই বাসিন্দা।

- Advertisement -

তবে এর পেছনে বড় ধরণের কোনও চক্র জড়িয়ে থাকার সন্দেহও তাঁরা উড়িয়ে দিচ্ছেননা। সেখানে বেশকিছু পুড়ে যাওয়া কাগজের ছাইও পড়ে থাকতে দেখা গিয়েছে বলে সূত্রের খবর। বেশ কিছু ইলেকট্রনিক জিনিসপত্র ভাঙচুর হয়ে পড়ে থাকতে দেখা গিয়েছে। নথিপত্র পোড়ানো হয়েছে কিনা এইসব বিষয় নিয়েও নানান প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। যদিও পুলিশ জানিয়েছে পুরো বিষয়টি তাঁরা তদন্ত করে দেখেছেন।

স্থানীয় এবং পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই দিন সন্ধ্যা নাগাদ স্থানীয় কৃষক বাজারে হঠাৎ প্রচন্ড শব্দ শুনতে পান কয়েকজন বাসিন্দা। এতেই সন্দেহ হওয়ায় স্থানীয় কয়েকজন এগিয়ে যেতেই চোরের দল পালিয়ে যাবার চেষ্টা করলে একজনকে ধরে ফেলেন তাঁরা।

মেখলিগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে আসলে আটক যুবককে পুলিশের হাতে তুলে দেন। কিষাণমান্ডি কর্তৃপক্ষের তরফেও চুরির ঘটনা নিয়ে মেখলিগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। অভিযোগ পেয়েই মেখলিগঞ্জ থানার ওসি মৃত্যুঞ্জয় চক্রবর্তীর নেতৃত্বে পুলিশ তদন্তে নামেন। এরপরেই কম্পিউটার উদ্ধার করার পাশাপাশি তিনজনকে গ্রেপ্তার করেন পুলিশ। সন্দেহ করা হচ্ছে, কৃষকবাজারে থাকা কিষাণমান্ডির অফিসে চুরির চেষ্টা করছিল চোরের দল। জানালার গ্রীল ভেঙে তারা ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করছিল। একজন ধরা পড়লেও বাকিরা তৎক্ষণাৎ পালিয়েছিল। এই ঘটনার পরেই এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন ইতিপূর্বে কৃষক বাজার এলাকা থেকে সাইকেল চুরির ঘটনা ঘটেছিল।

বাংলাদেশ সীমান্ত ঘেঁষা এই কৃষক বাজার এলাকায় চুরির ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ও আতঙ্কও ছড়িয়েছে। এই ঘটনার পর এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও জোরদার করার দাবি উঠেছে। উল্লেখ্য, এই কৃষক বাজার চত্বরেই মেখলিগঞ্জ ব্লক কৃষি দপ্তরও রয়েছে। এখানে সরকারি তরফে ধান কেনা বেচাও করা হয়।